৮৭ গালি,১৯ মিনিট ৪৯ সেকেন্ডে

46

যুগবার্তা ডেস্কঃ ১৯ মিনিট ৪৯ সেকেন্ডে ৮৭ গালি….তিনিই এখন ইসলামের রক্ষক….
নারায়ণগঞ্জের শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে কান ধরে উঠ-বস করিয়ে দেশজুড়ে তীব্র নিন্দিত সাংসদ সেলিম ওসমানের হুমকি ধামকি, গালাগাল আর অশ্রাব্য কথাবার্তার এক অডিও ফাঁস হয়েছে। ফাঁস হওয়া ফোনালাপের পুরোটা জুড়েই সেলিম ওসমানের উদ্ধত প্রকাশ পেয়েছে। গণমাধ্যমে প্রকাশ করার অযোগ্য ভাষার ব্যবহার রয়েছে অজস্র।
মোবাইল ফোন সংলাপে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাবের সাধারণ সম্পাদক ও এনটিভির জেলা প্রতিনিধি নাফিজ আশরাফের সাথে কথা বলতে শোনা গেছে তাকে। এই সাংবাদিকের চাকরি খাওয়ারও হুমকি দেন জাতীয় পার্টির এই সাংসদ। যার ভাই শামীম ওসমান ক্ষমতাসীন আওয়ামীলীগের সাংসদ।
কুড়ি মিনিটের আলাপের পুরোটা সময় নাজিফের কণ্ঠস্বর ছিল সীমিত, তাঁর সাথে ওসমান পরিবারের ‘ঘনিষ্ঠ সম্পর্কের’ বিষয়টিও উঠে এসেছে ফোনালাপে।
সেলিম ওসমানের সঙ্গে নাফিজ আশরাফের ওই কথোপকথনের একটা বড় অংশ ‘অকথ্য’ ভাষায়। এই প্রতিবেদনে সেগুলো বাদ দেওয়া হয়েছে।
সাধারণ সম্পাদক নাফিজকে শারীরিকভাবে লাঞ্ছিত করার অভিযোগে এক সদস্যকে নারায়ণগঞ্জ প্রেস ক্লাব থেকে বহিষ্কার নিয়ে তাদের কথোপকথনের সূত্রপাত।
ধর্ম অবমাননার অভিযোগ তুলে গত শুক্রবার নারায়ণগঞ্জের বন্দর উপজেলার পিয়ার সাত্তার লতিফ উচ্চবিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শ্যামল কান্তি ভক্তকে একদল লোক মারধর করে। পরে তাকে কান ধরিয়ে উঠ-বস করান স্থানীয় সাংসদ সেলিম ওসমান।
দেশজুড়ে ওই ঘটনার প্রতিবাদ ও দোষীদের বিচার দাবির মধ্যেই মঙ্গলবার সেই শিক্ষককে চাকরিচ্যুত করে স্কুল কর্তৃপক্ষ।
এ ঘটনায় সংসদ সদস্য সেলিম ওসমানসহ জড়িত অন্যদের ক্ষমা চাওয়ার আহ্বান জানিয়েছে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন। ওই শিক্ষককে চাকরিতে পুনর্বহালের দাবি জানিয়ে ১৪ দল বলেছে, ওই কাজ করে সেলিম ওসমান সাংসদ পদের মর্যাদা ক্ষুণ্ন করেছেন।
এমন পরিস্থিতিতে ফাঁস হওয়া রেকর্ড নিয়ে প্রতিবেদন না করার জন্য এই সাংসদের কাছ থেকে অনুরোধ এসেছে।