৫ জানুয়ারি নির্বাচনকে নিয়ে বিতর্কের আর কোন অবকাশ নেই…ওয়ার্কার্স পার্টি

124

যুগবার্তা ডেস্কঃ ক্ষমতাসীন জোটের শরিক ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এক বিবৃতিতে জানিয়েছেন যে, গত ৫ জানুয়ারি ২০১৪ বাংলাদেশের জাতীয় সংসদ নির্বাচন ছিল দেশের গণতন্ত্র ও সাংবিধানিক ধারাবাহিকতা অব্যহত রাখার নির্বাচন সেই নির্বাচনকে বানচাল করার লক্ষে বিএনপি-জামাত এর নেতৃত্বে তথাকথিত ২০ দলীয় জোট হত্যা খুন নাশকতা সন্ত্রাস ও মানুষ পোড়ানোর মতন সহিংসতার পথ বেছে নিয়েছিল যা বাংলাদেশের মানুষের স্মৃতি থেকে এখনও মুছে যায়নি। যারা ৫ জানুয়ারি ২০১৪ নির্বাচনকে মেনে নিতে পারে না তারা পক্ষান্তরে দেশের গণতন্ত্র সংবিধান ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরোধিতা করছে। শুধু তাই নয় ৫ জানুয়ারি নির্বাচনকে নিয়ে যারা সহিংসতা করেছে তারা বাংলাদেশকে পাকিস্তান বানানোর ষড়যন্ত্রে লিপ্ত ছিল। দেশের অগ্রযাত্রা, উন্নয়ন ও মুক্তিযুদ্ধের বিরোধিতাকারী যুদ্ধাপরাধীদের বিচার এবং জঙ্গীবাদকে পরাস্থ করার জন্য এই নির্বাচন প্রয়োজন ছিল। নেতৃবৃন্দ আরও বলেন, যারা সেই দিন নির্বাচনে অংশ নিলেন না আমরা লক্ষ্য করলাম তারা আবার সম্প্রতি অনুষ্ঠিত পৌর নির্বাচনে অংশ নিলেন। যা থেকে প্রমাণ করে ২০ দলীয় জোটের সেই দিনের সেই সিদ্ধান্ত ছিল আত্মঘাতী। নির্বাচন কমিশনকে শক্তিশালী করার প্রস্তাব আর নির্বাচনে অংশ না নেওয়া এক কথা নয়। যারা ৫ জানুয়ারি ২০১৪ নির্বাচন নিয়ে দেশকে অস্থিতিশীল করতে চায় তারা গণতন্ত্র, সংবিধান ও মুক্তিযুদ্ধের চেতনার বিরোধী। নেতৃবৃন্দ বলেন, ৫ জানুয়ারি ২০১৪ নির্বাচনকে নিয়ে বিতর্কের আর কোন অবকাশ নেই। বিএনপি-জামায়াত এর নেতৃত্বে ২০ দলীয় জোটের ষড়যন্ত্র, নাশকতা ও জঙ্গিবাদী তৎপরতা প্রতিহত করতে জনগণকে ঐক্যবদ্ধ থাকার আহ্বান জানান।