২৮-৩১ অক্টোবর সিপিবি’র একাদশ কংগ্রেস

106

যুগবার্তা ডেস্কঃ বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি (সিপিবি)’র একাদশ কংগ্রেস আগামী ২৮-৩১ অক্টোবর ঢাকায় কংগ্রেস অনুষ্ঠিত হবে। শুক্রবার ও শনিবিার মুক্তিভবনে অনুষ্ঠিত দু’দিনব্যাপী কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় এই সিদ্ধান্ত গ্রহন করা হয়েছে।
দলের সভাপতি মুজাহিদুল ইসলাম সেলিমের সভাপতিত্বে সভায় একাদশ কংগ্রেস সম্পর্কিত বিভিন্ন প্রস্তাবনা উত্থাপন করেন পার্টির সাধারণ সম্পাদক সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ এবং কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যরা প্রস্তাবনা সম্পর্কে আলোচনা করেন। একাদশ কংগ্রেস সফল করতে জোর প্রস্তুতি শুরু করার জন্য সর্বস্তরের পার্টি সংগঠনের প্রতি আহ্বান জানানো হয়েছে।
কেন্দ্রীয় কমিটির সভায় কংগ্রেসের সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে। ২৮ অক্টোবর শুক্রবার বিকেল ২টায় ঢাকার সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে কংগ্রেসের উদ্বোধনী সমাবেশ অনুষ্ঠিত হবে। সমাবেশ শেষে লাল পতাকার বর্ণাঢ্য মিছিল ঢাকার রাজপথ প্রদক্ষিণ করবে। ২৯-৩১ অক্টোবর ঢাকার হাজি বশির মিলনায়তনে (মহানগর নাট্যমঞ্চ) কংগ্রেসের অধিবেশন অনুষ্ঠিত হবে। কংগ্রেসে বিভিন্ন দেশের ভ্রাতৃপ্রতিম পার্টিসমূহের নেতৃবৃন্দকে আমন্ত্রণ জানানো হবে।
আগামী ১৫ জুলাই থেকে ১৫ আগস্টের মধ্যে পার্টির শাখা সম্মেলন, ১৬ আগস্ট থেকে ৩১ আগস্টের মধ্যে উপজেলা/থানা, আঞ্চলিক সম্মেলন এবং ১ সেপ্টেম্বর থেকে ৩০ সেপ্টেম্বরের মধ্যে জেলা সম্মেলন সম্পন্ন করার সিদ্ধান্ত হয়েছে।
সভায় আগামী ২৪, ২৫ জুন কেন্দ্রীয় কমিটির সভা অনুষ্ঠিত হবে এবং সেই সভায় রাজনৈতিক প্রস্তাবের খসড়া অনুমোদিত হবে। একাদশ কংগ্রেসের মূল দলিল হিসেবে ‘রাজনৈতিক প্রস্তাব’-এর খসড়া জুন মাসের শেষের দিকে আলোচনা ও মতামত প্রদানের জন্য সারাদেশে পার্টি কমরেডদের মধ্যে বিতরণ করা হবে। ১০ জুলাই থেকে ২৫ জুলাই সারাদেশে সব জেলায় (সব পার্টিসদস্য ও প্রার্থীসদস্যদের নিয়ে) পার্টির সাধারণ সভা অনুষ্ঠিত হবে। এইসব সভায় কেন্দ্রীয় কমিটির পক্ষ থেকে ‘খসড়া রাজনৈতিক প্রস্তাব’ ব্যাখ্যা করা হবে।
খসড়া দলিল প্রণয়ন করার জন্য কেন্দ্রীয় কমিটির এই সভায় চারটি ‘খসড়া দলিল প্রণয়ন কমিটি’ গঠন করা হয়। এই কমিটিগুলো হলো :
কেন্দ্রীয় কমিটির রিপোর্ট : আহ্বায়ক- সৈয়দ আবু জাফর আহমেদ, সদস্যবৃন্দ- মোহাম্মদ আলতাফ হোসাইন, সাজ্জাদ জহির চন্দন, আজহারুল ইসলাম আরজু, রুহিন হোসেন প্রিন্স ও অনিরুদ্ধ দাশ অঞ্জন।রাজনৈতিক প্রস্তাব : আহ্বায়ক- মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম, সদস্যবৃন্দ- মো. শাহ আলম, আহসান হাবিব লাবলু, অধ্যাপক এম এম আকাশ, মোজাম্মেল হক তারা ও অ্যাড. এমদাদুল হক মিল্লাত। ঘোষণা ও কর্মসূচি সমসাময়িকীকরণ : আহ্বায়ক- হায়দার আকবর খান রনো, সদস্যবৃন্দ- শাহীন রহমান, ডা. মনোজ দাশ, ডা. দিবালোক সিংহ, অ্যাড. সোহেল আহমেদ ও জলি তালুকদার। গঠনতন্ত্রের সংশোধনী : আহ্বায়ক- মৃণাল চৌধুরী, সদস্যবৃন্দ- শামছুজ্জামান সেলিম, রফিকুজ্জামান লায়েক, রাগিব আহসান মুন্না, মিহির ঘোষ ও হাসান তারিক চৌধুরী।