হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার এক বছর পূর্তিতে জঙ্গিদের হাতে নিহতদের স্মরণে শ্রদ্ধা নিবেদন

যুগবার্তা ডেস্কঃ গুলশানের হলি আর্টিজান রেস্তোরাঁয় হামলার এক বছর পূর্তিতে জঙ্গিদের হাতে নিহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানানো হয়।
শনিবার সকাল থেকে এ রেস্তোরাঁয় নিহতদের শ্রদ্ধা জানাতে আসেন বিদেশি কূটনীতিক, উন্নয়ন সংস্থার প্রতিনিধি, নিহতদের পরিবারের স্বজনসহ সমাজের বিভিন্ন শ্রেণি-পেশার মানুষ। এ উপলক্ষে আজ সকাল ১০টা থেকে দুপুর ২টা পর্যন্ত চার ঘণ্টার জন্য হলিজান আর্টিজান রেস্তোরাঁ সবার জন্য উন্মুক্ত রাখা হয়। সকাল ৮টার কিছু পরে প্রথমে শ্রদ্ধা জানাতে আসেন, জাপানের রাষ্ট্রদূত মাশাতো ওয়ানাতাবে এবং উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা জাইকার বাংলাদেশের আবাসিক প্রতিনিধি মিকিও হাতাডেয়া।

এদিকে, শ্রদ্ধা জানাতে আসা মানুষের নিরাপত্তার জন্য পর্যাপ্ত পুলিশ ওই ভবনের ভেতর এবং আশপাশে রাখা হয়। জানা গেছে, জঙ্গি হামলার পর প্রায় সাড়ে চার মাস আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীর তত্ত্বাবধানে থাকে গুলশান-২ নম্বরের ৭৯ নম্বর সড়কের ৫ নম্বর প্লটে ভবনটি। গত বছরের ১৩ নভেম্বর পুলিশ মালিককে এর দায়িত্ব বুঝিয়ে দেয়। হলি আর্টিজানের অন্যতম মালিক সাদাত মেহেদী জানান, এক বছর আগে এদিন এখানে অনেক দেশি-বিদেশি মানুষকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়। তাদের স্বজনেরা শ্রদ্ধা জানাতে আসবেন। মূলত এ বিষয়টি মাথায় রেখে চার ঘণ্টা খোলা রাখার সিদ্ধান্ত হয়েছে। এমনকি বাড়িটির সামনে সাদা কাপড়ে মোড়ানো লম্বা আকৃতির একটি মঞ্চ তৈরি করা হয়েছে।

এদিকে হলি আর্টিজানের বর্ষপূর্তিতে শ্রদ্ধা জানাতে ইতালি সরকারের চার সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল বাংলাদেশে এসেছে। ইতালি দূতাবাস এবং বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের যৌথ উদ্যোগে হয় ওই স্মরণ অনুষ্ঠান। জাপানের সাত নাগরিকের স্মরণে শোকসভার আয়োজন করছে জাপান দূতাবাস ও বাংলাদেশ পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বিভিন্ন রাজনৈতিক, সামাজিক ও সংস্কৃতকর্মীরা দিনটি স্মরণে কর্মসূচী পালন করেন।

উল্লেখ্য, হলি আর্টিজান রেস্টুরেন্টে সশস্ত্র হামলা চালায় পাঁচ জঙ্গি। জঙ্গিরা নয়জন ইতালিয়ান, সাতজন জাপানি, একজন ভারতীয় নাগরিক এবং তিন বাংলাদেশি ও দুজন পুলিশ কর্মকর্তাসহ মোট ২২ জনকে নির্মমভাবে হত্যা করে।