সৌদি নারীরা এখনও ক্রীতদাস : মানাল আল-শরীফ

90

যুগবার্তা ডেস্কঃ সৌদি আরবে নারী চালকদের উপর নিষেধাজ্ঞা উপেক্ষা করে গাড়ি চালানোর দায়ে ৯ দিন কারাগারে কাটিয়েছিলেন সৌদি নারী অধিকারকর্মী মানাল আল-শরীফ। এরপরও মুখ বন্ধ রাখেননি তিনি। আবারও সোচ্চার হলেন সৌদি নারীদের দূরাবস্থা নিয়ে। তার মতে, সৌদি নারীরা এখনও কৃতদাস।
সম্প্রতি একটি সাক্ষাতকারে সৌদি আরবে নারী চালকদের নিষেধাজ্ঞা সম্পর্কে মানাল বলেন, ‘আমি খুব গোড়া সমাজ থেকে এসেছি যেখানে নারীরা এখনো বন্ধ জানালা, উঁ” দেয়াল এবং পর্দাচ্ছাদিত পোশাকের মধ্যে থাকতে বাধ্য হয়। সৌদি আরবের নারীদের জন্য পুরুষ অভিভাবকের অনুমতি ছাড়া কিছু করা খুবই কঠিন।’
২০১১ সালে তিনি আল-কোভার এর রাস্তায় তার ড্রাইভিংয়ের ভিডিওটি ইউটিউবে আপলোড করায় একদিনেই ভিউ হয়েছিল ৭ লাখ। তবে গাড়ি চালানোর দায়ে গালিগালাজ শোনা ছাড়াও প্রাণনাশের হুমকিও পেয়েছেন তিনি। এরপর ৯ দিনের কারাবাস কেড়ে নেয় তার ঘর, চাকরি সহ সন্তানকে নিজের কাছে রাখার অধিকার।
সামান্য গাড়ি চালানোর কারণে সব কিছু হারানো মানাল সম্প্রতি অস্ট্রেলিয়ান ড্রাইভিং লাইসেন্স পেয়েছেন। নিজের খুশি ভাষায় প্রকাশ করে মানাল বলেন, ‘৩০০ ডলার খরচ করে ড্রাইভিং লাইসেন্স নিয়েছি। এটি পেয়ে আমি খুব খুশি। এটি স্বাধীনতা পাওয়ার মতো অনুভূতি।’
সৌদি আরবই একমাত্র দেশ, যেখানে স্থানীয় বা বাহিরের কোন নারীকেই গাড়ী চালানোর অধিকার দেওয়া হয় না। এ নিয়ে কোন পুথিগত আইন না থাকলেও পুলিশের তৎপরতায় অলিখিত এ আইন প্রচলিত রয়েছে পুরো আরব জুড়ে। ইনডিপেনডেন্ট