সেনাবাহিনী মোতায়েনের দাবী মংলার চাঁদপাই ইউনিয়নে

64

মংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ আগামী ২২ মার্চ প্রথম দফার ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে মংলা উপজেলার চাঁদপাই ইউনিয়নের নয়টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ন। আ্ওয়ামীলীগ ও ইসলামী শাসনতন্ত্র আন্দোলন মনোনীত এবং একজন স্বতন্ত্র প্রার্থী চাঁদপাই ইউনিয়নে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। প্রথম বারের মতো চাঁদপাই ইউনিয়নে সদস্য পদে সাধারন আসনে পুরুষের পাশাপাশি পাঁচজন প্রার্থী প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন।
স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী বিশিষ্ট ব্যবসায়ী মোঃ শাহ্ আলম শেখ জানান চাঁদপাই ইউনিয়নের নয়টি কেন্দ্রই ঝুঁকিপূর্ন। তিনি বলেন আ্্ওয়ামীলীগ মনোনীত প্রার্থীর পক্ষ থেকে আমার নির্বাচনী কর্মীদের ভয়-ভীতি দেখানো হচ্ছে। ভোটারদের বলা হচ্ছে কোন বুথ রুম থাকবেনা ভোট প্রকাশ্যে দিতে হবে এবং এজেন্টদের বের করে দেয়া হবে। এমতাবস্থায় ভোট অবাধ-সুষ্ঠু-নিরপেক্ষ হবে বলে মনে করছিনা। স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী মোঃ শাহ্ আলম শেখ নির্বাচন অবাধ-সুষ্ঠু-স্বচ্ছ ্ও নিরপেক্ষ করার জন্য ২২ মার্চ ভোটের তিনদিন আগে থেকে এক সপ্তাহের জন্য সেনাবাহিনী নিয়োগের দাবী জানান। ইসলামী আন্দোলন মনোনীত প্রার্থী ম্ওালানা তৈয়বুর রহমান বলেন ইলেকশন কমিশনারের কাছে অভিযোগ জানিয়েছি। ভোট দেখিয়ে দেয়ার হুমকি চলছে। ভোট সুষ্ঠু এবং শান্তিপূর্ন হবে বলে মনে হচ্ছে না। চাঁদপাই ইউনিয়নের ৯ নং ওয়ার্ডে সাধারন আসনে পুরুষের পাশাপাশি নারী প্রার্থী সুপ্রিয়া পোদ্দার প্রতিদ্বন্ধিতা করছেন। তিনি সংশয় এবং শংকা প্রকাশ করে বলেছেন ভোটাররা মূখ খুলতে পারছেন না। তারা তাদের পছন্দ মতো প্রার্থীকে ভোট দিতে পারবে বলে মনে হচ্ছে না। একই কথা জানিয়েছেন সাধারন আসনে প্রতিদ্বন্দিতাকারী নারী সদস্য প্রার্থী ৫নং ওয়ার্ডের নাসরিন বেগম, ৬নং ওয়ার্ডের ছবি গোলদার এবং ৭নং ্ওয়ার্ডের ছায়রা বেগম। নির্বাচন কেমন হবে এ বিষয়ে জানতে চাইলে চাঁদপাই ইউনিয়নের সুজন-সুশাসনের জন্য নাগরিক’র সাধারন সম্পাদক তানজীম হোসেন বলেন দলীয় প্রার্থী এবং দলীয় প্রতীক স্থানীয় সরকারের নির্বাচনকে হুমকির মূখে ফেলেছে। তৃণমূল পর্যায়ে রাজনৈতিক কোন্দল বেড়ে গেছে। নির্বাচন সুষ্ঠু হবে বলে মনে হচ্ছে না। ভোটাররা স্বাধীন ভাবে তাদের পছন্দ মতো প্রার্থীকে ভোট দিতে বাঁধার সম্মুখীন হচ্ছেন।