সিলেট সেনানিবাসের কিশোর চোর রাসেলকে হস্তান্তর করেছে উজিরপুর থানা পুলিশ

বরিশাল অফিসঃ সিলেট সেনানিবাসের প্রশিক্ষনপ্রাপ্ত সেনাকর্মকর্তা লেফট্যনেন্ট মোঃ সোহেল, লেফট্যনেন্ট মোঃ আশিক সহ ৪জন সেনাকর্মকর্তার ব্যাটম্যান (বয়) হিসাবে কর্মরত এবং বরিশালের উজিরপুর থানায় গ্রেফতারকৃত রাসেল খান (১৫ কে তার পিতা আঃ সোবাহান ও সেনাবাহিনির সার্জেন্ট মোঃ জাকির হোসেন ও সৈনিক মোঃ আরাফাত হোসেনের কাছে রবিবার বেলা সারে ১১টারদিকে হস্তান্তর করেছে উজিরপুর মডেল থানা পুলিশ।
উজিরপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্য (তদন্ত) মোঃ ইকবাল হোসেন জানিয়েছেন সিলেট সেনানিবাসে সেনা কর্মকর্তাদের বয় হিসাবে সিলেট জেলার জৈন্তা থানার পঃ ঠাকুরামাটি গ্রামের মোঃ আঃ সোবাহান খানের কিশোর ছেলে মোঃ রাসেল খাঁন(১৫) কাজ করতো। সুযোগ বুঝে কাজের ফাকে ২০ অক্টোবর ৪জন সেনা কর্মকর্তার ৬টি এন্ড্রয়েট মোবাইল সেট ও নগদ ৭ হাজার টাকা নিয়ে রাসেল পালিয়ে যায়। ২১ অক্টোবর দুপরের দিকে সে বরিশালের উজিরপুর উপজেলার বরাকোঠা ইউনিয়নের বারো মাদবরের হাট (সমিতির হাট) এলাকায় সন্দেহ জনক ভাবে ঘোরাফেরা করলে ¯’ানিয় লোকজন রাসেলকে আটক করে তার কাছে মূল্যবান ৬টি মোবাইল সেট দেখে চোর সন্দেহ করে পুলশকে জানালে উজিরপুর মডেল থানার এস,আই,মোঃ বেলাল হোসেন তাকে গ্রেফতার করে থানায় নিয়ে আসে। পরে রাসেলের স্বিকারউক্তি মোতাবেক উজিরপুর থানা পুলিশ সিলেট সেনানিবাসে এবং রাসেলের পিতা সোবাহান খানের সাথে যোগাযোগ করলে সেনাবাহিনির উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের নির্দেশে সিলেট সেনানিবাস থেকে সার্জেন্ট মুহাম্মদ জাকির হোসেন,নং ৪০২০৮৮৮, ও সৈনিক মোঃ আরাফাত হোসেন,নং ৪৫০৭১৭৬, রাসেলের পিতা সোবাহানকে সাথে নিয়ে রোববার সকালে উজিরপুর থানায় এসে রাসেলকে তাদের জিন্মায় নেওয়ার জন্য লিখিত আবেদন করলে উজিরপুর থানা পুলিশ তাদের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের সাথে আলোচনা সাপেক্ষে রাসেলকে এবং তার সাথে থাকা ৬টি মোবাইল সেট ও নগদ ৩’শ টাকা সহ সেনা সদস্যদের কাছে অক্ষত অব¯’ায় উজিরপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোঃ ইকবাল হোসেন হস্তান্তর করেন।