সিরিয়ায় অভিযান চালাতে সৌদির যুদ্ধবিমান তুরস্কে

63

যুগবার্তা ডেস্কঃ সিরিয়ায় জঙ্গিগোষ্ঠী ইসলামিক স্টেটের (আইএস) বিরুদ্ধে অভিযান ‘জোরদার করতে’ সৌদি আরব তুরস্কের একটি বিমানঘাঁটিতে বেশ কিছু যুদ্ধবিমান মোতায়েন করেছে। সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয় বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেছে, দেশটি সিরিয়ায় পদাতিক সেনা পাঠানোর পরিকল্পনা নিয়ে এগোচ্ছে। সৌদির মিত্র দেশ তুরস্কও বলেছে, তারা সৌদির সঙ্গে যৌথভাবে সিরিয়ার আইএস জঙ্গিদের বিরুদ্ধে পদাতিক সেনা অভিযান চালাবে। খবর এএফপির।
সৌদি প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র ব্রিগেডিয়ার জেনারেল আহমেদ আল আসিরির বরাত দিয়ে শনিবার রাতে আল আরাবিয়া টেলিভিশন জানায়, তুরস্কের ইনসারলিক বিমানঘাঁটিতে সৌদি যুদ্ধবিমানগুলো পৌঁছেছে। খবরে বলা হয়, আল আসিরি বলেছেন, আইএসবিরোধী অভিযান জোরদার করতে সেখানে বিমান ও ক্রু পাঠানো হয়েছে। তবে বিমানের সংখ্যা সম্পর্কে তিনি কিছু জানাননি।
আসিরি বলেছেন, ব্রাসেলসে মার্কিন নেতৃত্বাধীন আইএসবিরোধী জোটের বৈঠকে জোট সদস্যদের সঙ্গে আলাপ-আলোচনা করেই তাঁরা তুরস্কে বিমান মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেন। সেখান থেকেই সিরিয়ায় আইএস ঘাঁটিতে অভিযান চালানো হবে। তিনি বলেন, এর পাশাপাশি পদাতিক অভিযান চালানোরও পরিকল্পনা রয়েছে এবং সেই লক্ষ্যেই তাঁরা এগোচ্ছেন। একটি সামরিক টাস্কফোর্স সার্বিক পরিস্থিতি খতিয়ে দেখছে। শিগগিরই তারা প্রতিবেদন দেবে। এরপরই এ বিষয়ে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে।
এ ছাড়া সৌদি পররাষ্ট্রমন্ত্রী আদেল আল যুবায়ের গতকাল রোববার রিয়াদে এক সংবাদ ব্রিফিংয়ে বলেন, রাশিয়া সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদকে ক্ষমতায় রাখতে পারবে না। রাশিয়া বাশারকে রাখতে যত চেষ্টাই করুক, তা কাজে আসবে না। তিনি বলেন, তুরস্কে সৌদির যুদ্ধবিমান মোতায়েন মার্কিন নেতৃত্বাধীন জোটের আইএসবিরোধী অভিযানেরই অংশ।
অন্যদিকে তুরস্কের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মেভলুত কাভুসোগলু শনিবার বলেন, সৌদির সঙ্গে জোট বেঁধে তাঁরা সিরিয়ায় আইএসবিরোধী পদাতিক অভিযান চালাতে পারেন।
মেভলুত কাভুসোগলুর এই বক্তব্যের পর গতকাল তুরস্কের সেনাবাহিনী সিরিয়ার উত্তরাঞ্চলীয় কুর্দিপ্রধান এলাকায় গোলা ছুড়েছে। সিরিয়া এ ঘটনার নিন্দা জানিয়ে জাতিসংঘকে এ বিষয়ে হস্তক্ষেপ করতে বলেছে।
গত সপ্তাহে সিরিয়ার পক্ষ থেকে বলা হয়, সরকারের অনুমতি ছাড়া যেকোনো দেশের সেনা সিরিয়ায় ঢুকলে সেটিকে আগ্রাসন বলে ধরে নেওয়া হবে এবং ওই বিদেশি সেনাদের ‘কফিনে’ ফেরত যেতে হবে। এ ছাড়া সিরিয়ার প্রেসিডেন্ট বাশার আল-আসাদের মিত্র ইরানের পক্ষ থেকে বলা হয়েছে, সিরিয়ায় পদাতিক সেনা পাঠানোর সাহস সৌদি আরবের নেই।
ইরানের হুঁশিয়ারি: সৌদি আরব সিরিয়ায় সেনা পাঠালে ইরান পাল্টা ব্যবস্থা নেবে বলে হুঁশিয়ারি দিয়েছেন ইরানের সেনাবাহিনীর উপপ্রধান ব্রিগেডিয়ার জেনারেল মাসুদ যাজায়েরি। গতকাল ইরানের আল আলম টেলিভিশনকে তিনি বলেছেন, ‘আমরা নিশ্চিতভাবেই সিরিয়া পরিস্থিতিকে বিদ্রোহ সমর্থনকারীদের ইচ্ছামাফিক পথে যেতে দেব না। আমরা যথাসময়ে যথাযথ ব্যবস্থা নেব।’ তিনি বলেন, সিরিয়া সরকার যখন বিদ্রোহীদের কাবু করে ফেলেছে সেই মুহূর্তে বিদ্রোহীদের মদদদাতারা আইএস দমনের নামে সিরিয়ায় হামলার পাঁয়তারা করছে। তিনি বলেন, সৌদি আরব এটা করলে অবশ্যই দাঁতভাঙা জবাব দেওয়া হবে।প্রথম আলো