সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার সম্পর্কে ওয়ার্কার্স পার্টি

যুগবার্তা ডেস্কঃ “বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি উদ্বেগের সাথে লক্ষ্য করছে যে, জাতীয় সংসদের আসন্ন নির্বাচনে ভোট প্রদানে ইভিএম ব্যবহার করা নিয়ে অনাবশ্যক ও অপ্রয়োজনীয় বিতর্ক সৃষ্টি করা হয়েছে। বিএনপি ও তার বাম বন্ধুরা একে ক্ষমতাসীনদের “ইলেকট্রনিক ভোট ম্যানিপুলেশন” এর কৌশল হিসেবে অবহিত বক্তব্য বিবৃতি প্রদান করেছে। অথচ এই প্রস্তাব একান্তই নির্বাচন কমিশনের, সরকারের নয়। বস্তুত নির্বাচন থেকে পালিয়ে যাওয়ার লক্ষ্য একে তারা আরেকটা অজুহাত হিসেবে ব্যবহার করতে চাচ্ছে। বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টি নির্বাচন কমিশনের সাথে অনুষ্ঠিত সংলাপে জাতীয় সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহারের বিষয়ে সুস্পষ্ট অভিমত প্রকাশ করেছিলো যে, স্থানীয় সরকারসমূহের নির্বাচনে ভোটদানে ইভিএম ব্যবহার করার মধ্য দিয়ে জনগণকে এই ব্যবস্থা সম্পর্কে পরিচিত করার পরই জাতীয় সংসদ নির্বাচনী এলাকায় কয়েকটি কেন্দ্রে এর পরীক্ষামুলক ব্যবহার করা যেতে পারে। এবারও সেটা করা যেতে পারে। নির্বাচন কমিশন যখন সম্প্রতি অনুষ্ঠিত সিটি কর্পোরেশনের নির্বাচনে কয়েকটি কেন্দ্রে মাত্র ইভিএম-এর মাধ্যমে ভোট নিয়েছে তাতেই এটা স্পষ্ট যে, এ ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন নিজেই এখনও প্রস্তুত নয়। জনগণও সেভাবে প্রস্তুত নয়। সে কারণেই নির্বাচন কমিশনের এই প্রস্তাব “ঘোড়ার আগেই গাড়ি” জুড়ে দেওয়ার সামিল। নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা এমনকি নির্বাচনকে বানচাল করার যে ষড়যন্ত্র রয়েছে এ ধরনের উদ্যোগ তাকেই শক্তিশালী করবে।

বিবৃতিতে ওয়ার্কার্স পার্টি আশা করে যে, নির্বাচন কমিশন বিষয়টি পুনঃবিবেচনা করবে এবং অংশীজন রাজনৈতিক দলসমূহের মতামত নিয়েই এ ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নেবে।”