শিক্ষক হত্যাকান্ডে’র প্রতিবাদে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল

57

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকী’র হত্যাকান্ডের সাথে যারা জড়িত তাদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে বৃহঃপতিবার ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ে বিক্ষোভ মিছিল করেছে সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট।
মিছিলটি মধুর ক্যান্টিন থেকে শুরু হয়ে পুরো ক্যাম্পাস প্রদক্ষিণ করে কলাভবনের মূল ফটকের সামনে সমাবেশে মিলিত হয়। সমাজতান্ত্রিক ছাত্র ফ্রন্ট কেন্দ্রীয় কমিটির সভাপতি নাঈমা খালেদ মনিকার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সমাবেশে বক্তব্য রাখেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় অর্থ বিষয়ক সম্পাদক ও ঢাকা নগর শাখার সাধারণ সম্পাদক ছাত্র নেতা শরিফুল চৌধুরী, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শাখার সভাপতি ছাত্র নেতা ইভা মজুমদার সমাবেশ পরিচালনা করেন সংগঠনের কেন্দ্রীয় কমিটির দপ্তর সম্পাদক ছাত্র নেতা রাশেদ শাহরিয়ার প্রমুখ।
সমাবেশে বক্তারা বলেন, “দেশে একের পর এক পরিকল্পিত হত্যাকান্ড চলছে। গত বছর অভিজিৎ রায়, ফয়সাল আরেফিন দীপনসহ পাঁচজন লেখক-ব্লগারকে খুন করা হয়েছে। আজ কয়েকদিন আগে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী নাজিমুদ্দিন সামাদকে হত্যা করা হয়েছে। প্রকাশ্য দিবালোকে খুন করা হয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকীকে। দেশ আজ যেন খুনিদের অভয়ারণ্যে পরিণত হয়েছে। দেশের কর্তা ব্যক্তিরা যেন লিপ সার্ভিস দিয়েই দায় সারছে। অপরাধীরা একের পর হত্যাকা- ঘটাচ্ছে কিন্তু তাদেরকে কোনো শাস্তির আওতায় আনা হচ্ছে না। স্পষ্টতই প্রশ্ন উঠে ১৫-১৬টি গোয়েন্দাবাহিনী, পুলিশ-সামরিক বাহিনীর তাহলে কাজ কী? এই বিচারহীনতার সংস্কৃতিই একের পর হত্যাকান্ডের প্রেক্ষাপট তৈরি করছে। আবার এই হত্যা-খুনের প্রতিবাদে যারা খুনিদের গ্রেফতার ও বিচারের দাবিতে রাজপথে কমসূর্চি পালন করছে তখন তাদেরকে পুলিশ দিয়ে নির্যাতন করা হচ্ছে। সরকারে এ ধরনের ঘৃন্ন তৎপরতা বন্ধ করতে হবে এবং জনগণের মনে যে আতঙ্ক তৈরি হয়েছে তা দূর করতে অবিলম্বে খুনিদের গ্রেফতার করে বিচারে আওতায় আনতে হবে। তাঁরা আরও বলেন, “এরকম সংকটময় পরিস্থিতিতে, যখন সত্য যুক্তি-ন্যায়বোধ ভুলুণ্ঠিত, তখন দেশের সকল শিক্ষিত-সচেতন মানুষকে এগিয়ে আসতে হবে। অন্ধকার যখন আজ গোটা জনপথকে গ্রাস করছে তখন নিশ্চুপ থাকার কোনো অবকাশ নেই। ধার্মিক মানুষদেরও এই চরম অধার্মিকতার বিরুদ্ধে রুখে দাঁড়াতে হবে।”
নেতৃবৃন্দ অবিলম্বে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক রেজাউল করিম সিদ্দিকীর খুনিদের গ্রেপ্তার ও দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবি করেন এবং দেশে যে আতঙ্কজনক পরিস্থিতি তৈরী করা হয়েছে তা মোকাবেলা করতে সকল গণতান্ত্রিক চেতনা সম্পন্ন মানুষদের ঐক্যবদ্ধ ভাবে প্রতিবাদ গড়ে তোলার আহ্বান জানান।