শতবর্ষী ওয়াহিদুন্নেছার মুক্তি লাভ

33

ফজলুল বারীঃ বয়স ১০০ পেরিয়ে গেছে। খুনের দায়ে যাবজ্জীবন জেল খাটছিলেন এক বর্ষীয়সী। ঢাকার অদূরে গাজিপুরের কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগারের মহিলা ওয়ার্ড থেকে মঙ্গলবার শতবর্ষীয়া ওই নারী বন্দী ওয়াহিদুন্নেছা মুক্তি লাভ করেছেন। তিনি চাঁদপুরের মতলব এলাকার সালামত প্রধানিয়ার স্ত্রী। প্রধান বিচারপতির নির্দেশক্রমে ওয়াহিদুন্নেছাকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে বলে কারা সূত্র জানিয়েছে। কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার-১-এর সিনিয়র জেল সুপার সুব্রত কুমার বালা বলেন, একটি খুনের মামলায় ওই মহিলাকে ২০০০ সালের ১৪ মে চাঁদপুরের আদালত যাবজ্জীবন কারাদণ্ড দেয়। তাঁকে ২০০৭ সালের ২৩ নভেম্বর কাশিমপুর মহিলা কেন্দ্রীয় কারাগারে আনা হয়।
গত ২৬ জুন প্রধান বিচারপতি সুরেন্দ্র কুমার সিনহা গাজিপুরে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় কারাগার পরিদর্শন করেন। এ সময় যেসব বন্দী বয়সের ভারে ন্যুব্জ হয়ে পড়েছেন এবং দীর্ঘদিন ধরে কারাগারে আটক আছেন—এ রকম বন্দীদের একটি তালিকা প্রধান বিচারপতিকে দেওয়া হয়। প্রধান বিচারপতি কিছু বন্দীর সঙ্গে কথাও বলেন। পরে প্রধান বিচারপতির বিশেষ উদ্যোগে শতবর্ষীয়া এই নারী বন্দীকে মুক্তি দেওয়া হয়েছে। বেলা সাড়ে ১১টায় ওই বন্দীকে মুক্তি দেওয়া হয়। এ সময় তাঁর ছেলেমেয়ে নাতিপুতিসহ আত্মীয়স্বজনেরা কারা ফটকে ভিড় করে হাজির ছিলেন। তারা, সেই সঙ্গে কারাগারের কর্মচারী, কারারক্ষীরা সবাই খুশি। রীতিমত উল্লাস-মিছিল করে ওয়াহিদুন্নেছাকে নিয়ে যাওয়া হয়।‌‌-লেখকঃ সিডনী প্রবাসী