লন্ডনে এক কুলাঙ্গার আছে, তাই টিউলিপ হত্যার হুমকি পাচ্ছে-প্রধানমন্ত্রী

36

যুগবার্তা ডেস্কঃ ব্রিটিশ পার্লামেন্টের সদস্য ও বঙ্গবন্ধুর নাতনি টিউলিপ সিদ্দিককে সম্প্রতি হত্যার হুমকি প্রসঙ্গে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, লন্ডনে এক কুলাঙ্গার বসে আছে। সে ওখানে যাওয়ার পর টিউলিপ হুমকি পাচ্ছে।
শনিবার জাতীয় প্রেসক্লাব মিলনায়তনে বাংলাদেশ ফেডারেল সাংবাদিক ইউনিয়ন ও ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের উদ্যোগে আয়োজিত ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তিনি এ কথা বলেন।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, টিউলিপকে দেওয়া হুমকিতে বলা হয়েছে ‘তোর নানাকে হত্যা করেছি। তোকে আর তোর মা-খালাকেও হত্যা করবো।’ এই হলো হুমকির ভাষা। যে হুমকি শুনে বিএনপি নেত্রীর সেই ‘হাসিনামুক্ত বাংলাদেশ চাই’ হুমকির কথা মনে পড়ে যায়। হুমকি-ধামকির মধ্য দিয়েই আমাদের চলতে হচ্ছে।
শেখ হাসিনা বলেন, যাদের চরিত্র মানুষ হত্যা, তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নিতে হবে। তিনি সাংবাদিকদের নবম ওয়েজ বোর্ড দাবির বিষয়ে বলেন, এর জন্য মালিক পক্ষের সঙ্গে কথা বলতে হবে। তথ্যমন্ত্রীকে এ ব্যাপারে ব্যবস্থা নিতে আহ্বান জানাচ্ছি।
প্রধানমন্ত্রী বলেন, আজকে যে গুপ্ত হত্যাগুলো করা হচ্ছে সেগুলো সুপরিকল্পিত। আমরা বলেছিলাম আমাদের কাছে প্রমাণ আছে, সেটি আপনাদের কাছে এখন স্পষ্ট হয়েছে। মাদারীপুরে প্রভাষক রিপনকে হত্যা চেষ্টায় আটক সে একজন শিবিরের কর্মী। কাজেই গুপ্তহত্যাগুলো সুপরিকল্পিতভাবে করা হচ্ছে তা এই ঘটনার পর আর কারো কোনো সন্দেহ থাকার কথা নয়।
প্রধানমন্ত্রী আরো বলেন, প্রভাষক রিপনকে যারা আঘাত করেছে তাকে জনগণই ধরেছে। তাই আমি আশা করি, এখন থেকে এ ধরনের ঘটনায় সাধারণ মানুষই তাদের আটক করবে। কারণ আমরা জঙ্গিবাদ-সন্ত্রাসের বিরুদ্ধে।
ইফতার অনুষ্ঠানে আরও বক্তৃতা করেন তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু, প্রধানমন্ত্রীর তথ্য উপদেষ্টা ও সাংবাদিক নেতা ইকবাল সোবহান চৌধুরী, জাতীয় প্রেসক্লাবের সভাপতি শফিকুর রহমান, বিএফইউজে’র ভারপ্রাপ্ত সভাপতি জাফর ওয়াজেদ, মহাসচিব ওমর ফারুক ও ডিইউজে’র সভাপতি শাবান মাহমুদ। অনুষ্ঠান সঞ্চালনা করেন ডিউজে’র সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী।
অনুষ্ঠানে বক্তৃতায় সাংবাদিক নেতারা নবম ওয়েজ বোর্ডের দাবি তোলেন। তারা সাংবাদিকদের চিকিৎসা ও আবাসন সুবিধা এবং বয়স্ক সাংবাদিকদের জন্য সুবিধাজনক কর্মসংস্থানেরও দাবি করেন।