রাজনীতিতে একবার রাজাকার-একবার মুক্তিযোদ্ধার সরকার- এই মিউজিক্যাল চেয়ারের খেলা বন্ধ করতে হবে: ইনু

যুগবার্তা ডেস্কঃ জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল-জাসদ জাতীয় কমিটির সভা শনিবার সকালে রমনাস্থ ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন সেমিনার হলে শুরু হয়। জাসদ সভাপতি ও তথ্যমন্ত্রী হাসানুল হক ইনু এমপির সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এ সভায় উপস্থিত রয়েছেন জাসদের সাধারণ সম্পাদক শিরীন আখতার এমপি, কার্যকরী সভাপতি এড. রবিউল আলম, স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. আনোয়ার হোসেন, মীর হোসাইন আখতার, ইকবাল হোসেন খান, এড. হাবিবুর রহমান শওকত, নুরুল আখতার, সহ-সভাপতি আব্দুল হাই তালুকদার, ফজলুর রহমান বাবুল, এড. শাহ জিকরুল আহমেদ, কাজী রিয়াজ, আফরোজা হক রীনা, সফি উদ্দিন মোলল্লা, মোঃ শহীদুল ইসলাম, মোহর আলী চৌধুরী, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আফজাল হোসেন খান জকি, লোকমান আহমেদ, সাখাওয়াত হোসেন রাঙ্গা, ওবায়দুর রহমান চুন্নু, শওকত রায়হান, নইমুল আহসান জুয়েল, রোকনুজ্জামান রোকন, এড. সাদিক হোসেন প্রমূখ।
সভাপতির স্বাগত ভাষণে জনাব হাসানুল হক ইনু এমপি বলেন, চলমান বাংলাদেশে দুর্নীতি-বৈষম্য-দারিদ্র সমস্যা থাকলেও এই মুহুর্তে দেশে রাজনীতি-ধর্ম-গণতন্ত্র-উন্নয়নের জন্য হুমকি ও বিপদ হিসাবে দেখা দিয়েছে জঙ্গিসন্ত্রাস। বর্তমান অবস্থায় জঙ্গিসন্ত্রাস নির্মূল বা দমনে সরকারের নেতৃত্বে জনগণ ঐক্যবদ্ধ। তাই চলমান বাংলাদেশের পরিস্থিতি হচ্ছে যুদ্ধ পরিস্থিতি। সব কিছুই জঙ্গি দমনের যুদ্ধের চশমা দিয়ে দেখতে হবে। এ যুদ্ধের ভেতরেই রাজনীতির দুই অংক: ১.সংবিধান অনুযায়ী যথাসময়ে নির্বাচন করতে হবে; যুদ্ধাপরাধীদের বিচার, আগুনসন্ত্রাসীদের বিচার করতে হবে। ২.সমৃদ্ধি ও উন্নয়ন ধারা অব্যাহত রাখার পাশাপাশি দারিদ্র-বৈষম্য-দলবাজী-দুর্নীতি অবসানে পদক্ষেপ নিতে হবে।
তিনি বলেন, এবারের রাজনীতির প্রধান চ্যালেঞ্জ হচ্ছে, বাংলাদেশকে চিরদিনের জন্য জঙ্গিমুক্ত করা, বাংলাদেশ যাতে আর কোনদিন জঙ্গি-রাজাকার সমর্থিত সরকার অথবা সামরিক সরকার আসতে না পারে- সে বিষয়টি নিশ্চিত করা। ‘রাজনীতিতে একবার মুক্তিযোদ্ধা একবার রাজাকার সমর্থিত সরকার’- এ মিউজিক্যাল চেয়ারের খেলা স্থায়ী ভাবে বন্ধ করার জন্য যথাসময়ে নির্বাচন করতে হবে, জঙ্গিসন্ত্রাস সম্পূর্ণ ধ্বংস করতে হবে। জঙ্গিসঙ্গীর প্রধান পৃষ্ঠপোষক, আগুনসন্ত্রাসী ও খুনীদের ভয়ংকর সিন্ডিকেটের প্রধান, পাকিস্থানের নব্য দালাল বেগম খালেদা জিয়া এবং বিএনপিকে ক্ষমতা এবং রাজনীতির বাইরে রাখতে হবে এবং যথাসময়ে নির্বাচনও করতে হবে।