যুব মৈত্রী’র জাতীয় সম্মেলন ৩ ও ৪ ডিসেম্বর

যুগবার্তা ডেস্কঃ আগামী ৩ ও ৪ ডিসেম্বর যুব মৈত্রীর ৭ম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে। শনিবার জাতীয় পরিষদ সভায় এ ঘোষনা দেয়। রাজধানীর তোপখানা রোডস্থ শহীদ আসাদ মিলনায়তনে সকাল থেকে দিনব্যাপী এ সভা সংগঠনের সভাপতি মোস্তফা আলমগীর রতনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় বাংলাদেশ যুব মৈত্রীর কেন্দ্রীয় কমিটিসহ দেশের বিভিন্ন জেলা ও মহানগর কমিটির সভাপতি ও সাধারন সম্পাদকগণের উপস্থিতিতে বর্তমান রাজনৈতিক পরিস্থিতি ও সাংগঠনিক করণীয় নিয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক বিষয় নিয়ে সূচনা বক্তব্য রাখেন সংগঠনের সাধারন সম্পাদক সাব্বাহ আলী খান কলিন্স।
সবায় বিভিন্ন জেলা প্রতিনিধিরা বক্তব্যে বলেন, বাংলাদেশের রাজনৈতিক পরিবেশকে অস্থিতিশীল করতে সারাদেশে বিএনপি-জামাত এবং আন্তর্জাতিকভাবে সাম্রাজ্যবাদী আমেরিকা জঙ্গীবাদীদের ইন্ধন ও মদদ দিচ্ছে। দেশের মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে ধ্বংস করতে বিএনপি জামাত মরিয়া আর এদের সাথে সহযোগীতা করছে আমেরিকা ও এর মিত্ররা। জঙ্গিবাদকে মোকাবেলা করে বাংলাদেশের স্বাধীনতা, মুক্তিযুদ্ধের চেতনা ও অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাজনীতির ধারা এগিয়ে নিতে যুব মৈত্রীকে অগ্রনী ভূমিকা নিতে হবে। যুব মৈত্রীকে দুর্নীতির বিরুদ্ধে এবং সুশাসন প্রতিষ্ঠায় লড়াই অব্যাহত রাখতে হবে। দুর্নীতি মুক্ত চাকুরীর নিশ্চয়তা আজ যুব সমাজের আকাক্সক্ষা, সেই আকাক্সক্ষাকে ধারন করে শোষিত বঞ্চিত যুবদের ঐক্যবদ্ধ করে লড়াই অব্যাহত রাখা জরুরী। সরকার আউটসোসিং এর নামে দেশের যুবকদের বঞ্চিত করে মধ্যসত্ব ভূগীদের সুযোগ করে দিচ্ছে। সরকারের আউটসোর্সিং নীতির তীব্র সমালোচনা করেন নেতৃবৃন্দ এবং এই নীতির বিরুদ্ধে যুব সমাজকে সংগঠিত করে লড়াইয়ের আহ্বান জানান।
প্রতিনিধিগণ আরও বলেন, জঙ্গীবাদকে মোকাবেলা করতে সর্বাত্মকভাবে প্রতিরোধ লড়াইয়ে মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের সকল দলকে ঐক্যবদ্ধ হতে হবে। শুধুমাত্র পুলিশ বা আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনী দিয়ে জঙ্গিবাদকে মোকাবেলা করা যাবে না। জঙ্গিবাদ প্রতিরোধ করতে দেশের জনগণনকে সম্পৃক্ত করার দায়িত্ব যুব মৈত্রীকে নিতে হবে।
জাতীয় সম্পদ সুন্দরবন ধ্বংসের চুক্তি বাতিলের দাবী জানায় জাতীয় পরিষদ। প্রতিনিধিগণ সরকারের গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির পায়তারার তীব্র সমালোচনা করেন এবং এই গণবিরোধী সিদ্ধান্ত গ্রহণ না করতে সরকারের প্রতি আহ্বান জানান।
জাতীয় পরিষদ সভা থেকে সর্বসম্মতিক্রমে আগামী ৩ ও ৪ ডিসেম্বর ২০১৬ ঢাকায় সংগঠনের ৭ম জাতীয় সম্মেলন অনুষ্ঠিত হবে।
দেশের ঢাকা বিভাগ এর জেলা সমূহ, রাজশাহী বিভাগের জেলা সমূহ, বরিশাল বিভাগের জেলা সমূহ, খুলনা বিভাগের জেলা সমূহ, সিলেট বিভাগের জেলা সমূহ, চট্টগ্রাম বিভাগের জেলা সমূহ, রংপুর বিভাগের জেলা সমূহ ও ময়মনসিংহ বিভাগের জেলা সমূহের প্রতিনিধিগণ জাতীয় পরিষদ সভায় বক্তব্য রাখেন।