যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আইএস সংযোগের প্রমাণ আছে ইরানের হাতে

21

যুগবার্তা ডেস্কঃ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে ইসলামিক স্টেটের (আইএস) সন্ত্রাসীদের সংযোগ রয়েছে বলে দাবি করেছে উচ্চ পদস্থ ইরানি কর্মকর্তারা। আর এটি প্রমাণ করার মতো যথেষ্ট পরিমাণ দলিল দস্তাবেজও আছে তেহরানে হাতে।
স্থানীয় সময় রোববার ইরানের সশস্ত্র বাহিনীর ডেপুটি চিফ অব স্টাফ মেজর জেনারেল মোস্তফা ইজাদি আইএস বা আইএসআইএস-এর সঙ্গে সংযোগে যুক্তরাষ্ট্রকে অভিযুক্ত করে বলেছেন, ‘এক সাহসী অভিযানে এসব প্রমাণ হস্তগত করেছে তেহরান।’
ফার্স নিউজ এজেন্সিকে ইজাদি আরও বলেন, ‘আমাদের হাতে যেসব প্রমাণপত্র আছে তাতে দেখা যায়, ইসলামি রাষ্ট্রগুলোকে ধ্বংস এবং গণহত্যা ও সংঘর্ষের জন্য আইএসকে পরিষ্কারভাবে সমর্থন দিয়েছে আমেরিকা।’
ইজাদির বক্তব্য অনুসারে, মধ্যপ্রাচ্যে প্রক্সি যুদ্ধবিগ্রহ আসলে ইসলামি প্রজাতন্ত্রের বিরুদ্ধে অহংকারী শক্তির নতুন কৌশল।
শুক্রবার ইরানের সংসদ স্পিকার আলি লারিজানিও একই ধরণের মন্তব্য করেন। ফার্স নিউজ এজেন্সির প্রতিবেদন অনুযায়ী লারিজানি বলেন, ‘আমেরিকা এ অঞ্চলে আইএসআইএলের সাথে নিজেদের সংযুক্ত করেছে।’ লারিজানি তেহরানে বুধবারে সন্ত্রাসী হামলায় নিহতদের অন্ত্যেষ্টিক্রিয়ায় গিয়ে এমন মন্তব্য করেন। অন্তেষ্টিক্রিয়ায় হাজারও ইরানি ‘সৌদি আরবের মৃত্যু হোক’ এবং ‘আমেরিকার মৃত্যু হোক’ স্লোগানে বিক্ষোভ প্রকাশ করে।
অন্তেষ্টিক্রিয়ায় লারিজানি আরও বলেন, ‘সন্ত্রাসীরা তাদের প্রধান লক্ষ্য অর্জনে ব্যর্থ হয়েছে। তাই তারা ইমাম খোমেনি সমাধিস্থলকে লক্ষ্যবস্তু করে নির্দোষ মানুষ ও কর্মীদের হত্যা করেছে।’
শুক্রবার ইরানের সর্বোচ্চ নেতা আয়াতুল্লাহ আলি খামেনি বলেন, ‘হামলা কেবল মার্কিনিদের প্রতি তেহরানের ঘৃণাই বাড়াবে।’
উল্লেখ্য, তেহরানে এই সপ্তাহের জোড়া হামলার দায়িত্ব স্বীকার করেছে আইএস। খোমেনি সমাধিসৌধে আত্মঘাতী হামলায় চার সশস্ত্র বিদ্রোহী সহ ১৭ জন নিহত হয়।-আমাদের সময়.কম