Home জাতীয় মোংলায় প্রধানন্ত্রীর উপহার ঘর পেয়ে আনন্দিত তৃতীয় লিঙ্গের শাহানাজ

মোংলায় প্রধানন্ত্রীর উপহার ঘর পেয়ে আনন্দিত তৃতীয় লিঙ্গের শাহানাজ

54

মোংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ মোংলায় প্রধানমন্ত্রীর উপহার ঘর ও জমি পেয়ে আনন্দিত তৃতীয় লিঙ্গের উপকারভোগী শাহানাজ। মুজিব শতবর্ষে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার উপহার হিসেবে দ্বিতীয় পর্যায়ে মোংলার ভূমিহীন ও গৃহহীন ৫০টি পরিবার ৫০টি ঘর ও জমি পেয়েছেন। ২০ জুন রবিবার সকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা উপকারভোগী পরিবারের কাছে গৃহ হস্থান্তর কার্য্যক্রম ভিডিও কনফারেন্স’র মাধ্যমে উদ্বোধনের পর মোংলা উপজেলা অফিসার্স ক্লাবে উপকারভোগীদের মাঝে প্রধানমন্ত্রীর পক্ষে উপজেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ ও জনপ্রতিনিধিবৃন্দ এঘর এবং জমি হস্থান্তার করেন।
রবিবার সকাল ১০টায় জমি ও ঘর হস্থান্তর অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন উপজেলা নির্বাহি অফিসার কমলেশ মজুমদার। ঘর হস্থান্তর অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হাওলাদার, পৌর মেয়র বীর মুক্তিযোদ্ধা শেখ আব্দুর রহমান, কোস্ট গার্ডের লেঃ কমান্ডার সিদ্দিক আহমেদ, সহকারি কমিশনার (ভূমি) নয়ন কুমার রাজবংশী, মোংলা বন্দর কর্তৃপক্ষ’র নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট শোভন সরকার, সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান সাংবাদিক মোঃ নূর আলম শেখ, প্রভাষক মাহবুবুর রহমান, উপজেলা প্রকল্প বাস্থবায়ন কর্মকর্তা মোঃ নাহিদুজ্জামান, ইউপি চেয়ারম্যান মোল্লা মোঃ তারিকুল ইসলাম, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ ইস্রাফিল হোসেন হাওলাদার প্রমূখ। প্রধানমন্ত্রীর কার্য্যালয়ের অর্থায়নে আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় ১ লাখ ৯০ হাজার টাকা ব্যয়ে শতভাগ স্বচ্ছতা ও মান বজায় রেখে মেরুন কালারের দৃষ্টিনন্দন ঘরগুলি নির্মান করা হয়েছে। ঘরসহ প্রত্যেক পরিবারকে দুই শতক জমিও প্রদান করা হয়। মোংলা উপজেলার কামারডাঙ্গা মৌজার নারিকেলতলা গ্রামে মোংলা নদীর পাড়ে এই ৫০টি ঘর নির্মান করা হয়েছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রধান অতিথি হিসেবে রবিবার সকালে গণভবন থেকে গৃহ হস্থান্তর কার্যক্রম ভিডিও কনফারেন্স’র মাধ্যমে উদ্বোধন করেন । প্রধানমন্ত্রীর উপহার হিসেবে সারাদেশে ৫৩ হাজার ৩৪০ টি ঘর ও জমি উপকারভোগীদের মাঝে হস্থান্তর করা হয়। এর আগে প্রথম দফায় সারা দেশে ৭০ হাজার এবং মোংলায় ৫০টি ঘর প্রদান করা হয়েছিলো। রবিবার ঘর এবং জমি পেয়ে আনন্দিত এমনটি জানিয়েছেন তৃতীয় লিঙ্গের উপকারভোগী শাহানাজ।। উপকারভোগী আঙ্গুরী বেগম, শেফালি বেগম, দিনোমনি হালদারসহ সকল উপকারভোগীরা জমি এবং ঘর পেয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন।