ভেঙে পড়ল হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা

38

ফজলুল বারীঃ “ফের ভেঙে পড়ল জনপ্রিয় মেসেজিং অ্যাপ হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা৷ চলতি মাসে এই নিয়ে দ্বিতীয়বার৷ ইউজারদের অভিযোগ, হোয়াটসঅ্যাপে মেসেজ পাঠানো যাচ্ছে না, চ্যাট করা যাচ্ছে না, ছবিও আপলোড হচ্ছে না৷ এমনকী, অনেক ইউজারের স্মার্টফোন থেকে হোয়াটসঅ্যাপে ঢুকতে পর্যন্ত পারছেন না বলে অভিযোগ করেছেন৷ কয়েক হাজার হোয়াটসঅ্যাপ ইউজার এই নিয়ে ক্ষোভে ফেটে পড়েছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়৷ এমনকী, অনেকে ফেসবুক অধীনস্থ এই অ্যাপ আন-ইনস্টল করে দেওয়ারও হুমকি দিয়েছেন৷ কেউ কেউ আবার হোয়াটসঅ্যাপের প্রতিদ্বন্দ্বী মেসেজিং অ্যাপগুলির প্রতি এবার ঝুঁকবেন বলেও পোস্ট করেছেন সোশ্যাল মিডিয়ায়৷
দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট, ডেইলি মেল-এর মতো একাধিক আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যমের দাবি, বুধবার বিকেল থেকে বিশ্বের একাধিক দেশে হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা বিঘ্নিত হয়েছে৷ বিশেষত ব্রিটেন, ইতালি, স্পেন, ব্রাজিলের একটি বড় অংশে, আর্জেন্টিনা, মেক্সিকো, নিউ ইয়র্ক ও সান ফ্রান্সিসকোতে হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা কোথাও আংশিক, কোথাও আবার পুরোপুরি স্তব্ধ হয়ে যায়৷ অ্যাপের প্রতি নজরদারি সংক্রান্ত একটি ওয়েবসাইট জানাচ্ছে, ব্রিটেনে বিকেল পাঁচটা থেকে টানা দেড় ঘন্টা স্তব্ধ হয়ে ছিল হোয়াটসঅ্যাপ৷ কোনও কোনও ইউজার তাঁদের কন্ট্যাক্ট লিস্ট অ্যাকসেস করতে পারছিলেন না, কোথাও আবার মেসেজ পৌঁছতে সময় লাগছিল ১৫ মিনিট৷ মোট অভিযোগের প্রায় ৫৬% জমা পড়েছে কানেকশন সংক্রান্ত ইস্যুতে, ৩২ শতাংশ ইউজার জানিয়েছেন, তাঁদের মেসেজ অন্যদের কাছে পৌঁছায়নি৷
ইউজাররা হোয়াটসঅ্যাপের বিরুদ্ধে তাঁদের ক্ষোভ উগরে দিয়েছেন ফেসবুক-টুইটারে৷ এই বিষয়ে হোয়াটসঅ্যাপ-ফেসবুক কর্তৃপক্ষ এখনও কোনও প্রতিক্রিয়া জানায়নি৷ এর আগে গত ৩ মে প্রায় ২ ঘন্টার জন্য হোয়াটসঅ্যাপ পরিষেবা স্তব্ধ হয়ে গিয়েছিল বলে জানাচ্ছে দ্য ইন্ডিপেন্ডেন্ট৷ অ্যাপটি খুললেই স্মার্টফোনের পর্দায় ‘কানেক্টিং’ লেখা ফুটে উঠছিল৷ তবে সেবার হোয়াটসঅ্যাপ কর্তৃপক্ষ একটি বিবৃতি জারি করে এই ঘটনার জন্য দুঃখপ্রকাশ করে৷ তবে কেন বারবার আমেরিকা, ব্রিটেন ইউরোপের বেশ কয়েকটি দেশে এমন ঘটনা ঘটছে, সে বিষয়ে উদ্বেগে সাইবার বিশেষজ্ঞরা৷ তবে কয়েকটি বিচ্ছিন্ন অভিযোগ ছাড়া ভারতে হোয়াটসঅ্যাপের বিরুদ্ধে পরিষেবায় ঘাটতির কথা বুধবার রাত পর্যন্ত শোনা যায়নি৷”