ভাস্কর্য স্থাপন আবার অপসারণ যেভাবে করলো এর দায় কার ঘাড়ে বর্তায়?—–ওয়ার্কার্স পার্টি

232

যুগবার্তা ডেস্কঃ শনিবার পার্টির স্টান্ডিং কমিটির জরুরি সভা পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেননের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সুপ্রিম প্রাঙ্গণে ভাস্কর্য অপসারণ প্রসঙ্গে বলা হয়- সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণে ন্যায় বিচারের প্রতীক থেসিস ভাস্কর্য স্থাপন পরবর্তী যে বিতর্ক সৃষ্টি হলো এবং যেভাবে তা অপসারণ করা হলো, আমাদের মুক্তিযুদ্ধ, স্বাধীনতা ও সংবিধানের দৃষ্টিভঙ্গির সঙ্গে সংঘর্ষ সৃষ্টি করা হলো। এটি অসাম্প্রদায়িক গণতান্ত্রিক রাজনীতির জন্য শুভ লক্ষণ নয়। আমরা পূর্বেই বলেছিলাম এই ভাস্কর্য অপসারণ করা হলে দেশের মুক্তিযুদ্ধ স্বাধীনতা ভাস্কর্য, বঙ্গবন্ধুর ভাস্কর্যসমূহকে ভেঙে ফেলার মৌলবাদী দাবি আরো জোরদার হবে। পত্রিকায় হেফাজতসহ অন্যান্য ধর্মান্ধ দলগুলো সেই যৌথ আওয়াজ তুলেছে। ঢাকা শহরের সমস্ত ভাস্কর্য ভেঙে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে। আমরা প্রশ্ন তুলতে চাই ভাস্কর্য স্থাপনে সুপ্রিম কোর্ট যেভাবে সিদ্ধান্ত নিল আবার অপসারণ যেভাবে করলো এর দায় কার ঘাড়ে বর্তায়? এটি সুপ্রিম কোর্টের পক্ষ থেকে জাতির সামনে বিবৃতি প্রদান করে পরিষ্কার করতে হবে। পাশাপাশি আবারও আমরা দ্বার্থহীন কণ্ঠে বলতে চাই – মুক্তিযুদ্ধের চেতনায় বিধৃত সংস্কৃতিক ক্ষেত্রে অবিচল থাকার জন্য দেশবাসীর প্রতি আহ্বান জানাচ্ছি। সভায় উপস্থিত ছিলেন পার্টির সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা, কমরেড নুরুল হাসান, কমরেড নুর আহমদ বকুল, কমরেড কামরূল আহসান প্রমুখ।