বেসিসের ‘ইন্টারনেট লিডারশিপ’ বিষয়ক কর্মশালা

52

‘ইন্টারনেট লিডারশিপ’ বিষয়ক কর্মশালায় বিভিন্ন উপজেলার ইন্টারনেটে কাজ করা ব্যক্তিদের মধ্যে বাছাই করে অংশগ্রহণের সুযোগ করে দিয়েছে বাংলাদেশ অ্যাসোসিয়েশন অব সফটওয়্যার অ্যান্ড ইনফরমেশন সার্ভিসেস (বেসিস)। রোববার রাজধানীর কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়েছে এ কর্মশালা।
বেসিসের পক্ষ থেকে জানানো হয়েছে, ‘বাংলাদেশ ইন্টারনেট সপ্তাহ ২০১৫’ আয়োজন সফল করতে প্রতিটি উপজেলা থেকে এ ধরনের কর্মী বেছে নেওয়া হয়েছে। সারা দেশে ইন্টারনেটের ব্যবহার বাড়াতে এবং দেশীয় ইন্টারনেট ভিত্তিক পণ্য ও সেবার প্রসারে আগামী ৫ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর শুরু হচ্ছে ‘বাংলাদেশ ইন্টারনেট সপ্তাহ-২০১৫।’ এর আয়োজক বেসিস, তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি বিভাগ এবং গ্রামীণফোন। ঢাকা, রাজশাহী, সিলেটে বড় তিনটি এক্সপোসহ দেশের ৪৮৭টি উপজেলায় একযোগে অনুষ্ঠিত হবে এই ইন্টারনেট উৎসব। এতে দেশের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স কোম্পানি, মোবাইল অ্যাপস ডেভেলপমেন্ট প্রতিষ্ঠান, ওয়েব পোর্টাল, ডিভাইস কোম্পানিসহ ইন্টারনেটভিত্তিক পণ্য ও সেবাদাতা প্রতিষ্ঠান অংশ নেবে। থাকবে নানা আয়োজন।
বেসিসের একটি সূত্র জানিয়েছে, ‘বাংলাদেশ ইন্টারনেট সপ্তাহ ২০১৫’ সফল করতে প্রতিটি উপজেলার একজনকে ইন্টারনেট লিডারশিপ কর্মশালায় ডাকা হয়েছে। এতে বাংলাদেশ ইন্টারনেট উইকের লক্ষ্য, মেলায় অংশগ্রহণকারী ও দর্শনার্থীদের অংশগ্রহণ নিশ্চিতকরণ, প্রচারণা কৌশল, কর্মশালা/সেমিনার/আলোচনা সভা আয়োজন, মেলার ডকুমেন্টেশন ও রিপোর্ট ইত্যাদি প্রয়োজনীয় সকল বিষয়ে জানানো হয়
ডিজিটাল মেলা ও ইন্টারনেট সপ্তাহ ২০১৫ আয়োজনে দেশের সেরা ১০ উপজেলাকে ‘সেরা ডিজিটাল মেলা ও ইন্টারনেট সপ্তাহ আয়োজক’ ও ব্যক্তি পর্যায়ে ‘সেরা ইন্টারনেট লিডার’ শীর্ষক জাতীয় স্বীকৃতি সনদ দেওয়া হবে। ইন্টারনেট লিডারশিপ কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীদের মধ্য থেকে ‘সেরা ইন্টারনেট লিডার’ নির্বাচিত হবেন। কর্মশালায় তথ্যপ্রযুক্তি বিভাগের প্রতিমন্ত্রী জুনাইদ আহমেদ পলকসহ বেসিসের কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।
আগামী ৫ থেকে ৭ সেপ্টেম্বর রাজধানীর বনানী মাঠে, ৯ সেপ্টেম্বর রাজশাহীর নানকিন বাজারে ও ১১ সেপ্টেম্বর সিলেটের সিটি ইনডোর স্টেডিয়ামে বৃহৎ পরিসরে বাংলাদেশ ইন্টারনেট উইক আয়োজন করা হবে। এ ছাড়া ৫ থেকে ১১ সেপ্টেম্বর দেশের ৪৮৭টি উপজেলায় সকল ইউনিয়ন ডিজিটাল সেন্টারের অংশগ্রহণে একযোগে এ উৎসব পালন করা হবে।