বেসরকারি শিক্ষক নিয়োগে কমিশন, গভর্নিং বডির কিছুই করার থাকবে না

52

যুগবার্তা ডেস্কঃপ্রাথমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পর্যায়ে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষক নিয়োগের জন্য একটি স্বাধীন কমিশন করছে সরকার, যার মধ্য দিয়ে পরিচালনা পর্যদগুলো এ বিষয়ে তাদের ‘কর্তৃত্ব’ হারাচ্ছে।
শিক্ষামন্ত্রী নুরুল ইসলাম নাহিদ বুধবার ‘বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ ও প্রত্যয়ন বিধিমালা- ২০০৬’ সংশোধন নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে জানান, আগামী এক মাসের মধ্যে এই কমিশন গঠন করা হবে।
‘বেসরকারি শিক্ষক নির্বাচন কমিশন’ হলে আগের মত আর শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা নেওয়ার প্রয়োজন পড়বে না। শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর চাহিদার ভিত্তিতে কমিশন পরীক্ষার মাধ্যমে উপজেলাভিত্তিক শিক্ষক নির্বাচন করবে।
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালনা পর্যদ কেবল কমিশনের দেওয়া মেধাক্রম অনুযায়ী শিক্ষক নিয়োগ দেবে।
দেশে বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানগুলোর পরিচালনা পর্যদে অধিকাংশ ক্ষেত্রে সভাপতির দায়িত্ব পালন করছেন ক্ষমতাসীন দলের স্থানীয় নেতা বা প্রভাবশালী ব্যক্তিরা। শিক্ষক নিয়োগের পুরো প্রক্রিয়া এতোদিন তাদের হাত দিয়েই শেষ হত, যা নিয়ে ‘নিয়োগ বাণিজ্য’সহ বিভিন্ন অভিযোগ রয়েছে।
শিক্ষামন্ত্রী বলেন, “বেসরকারি শিক্ষক নির্বাচন কমিশন গঠনের পরে বেসরকারি শিক্ষক নিবন্ধন পরীক্ষা গ্রহণ ও প্রত্যয়ন কর্তৃপক্ষ (এনটিআরসিএ) বিলুপ্ত করা হবে।”
তবে এনটিআরসিএ’র অধীনে এর আগে যারা সনদ পেয়েছেন তারাও বেসরকারি শিক্ষক নির্বাচন কমিশনের মেধা তালিকায় থাকবেন বলে শিক্ষামন্ত্রী জানান।