বেশী প্রয়োজন মানুষ হওয়া, মানবিক হওয়া

7

এম আর ফারজানা: অনেকের ধারনা বড়লোকের সন্তান মানে খারাপ। এটা ভুল ধারণা। দেশের কথা জানিনা। তবে আমেরিকাতে এসব নাই। এই যে বিল গেটস বা ওবামা বা বুশের সন্তান বা ক্লিনটনের মেয়ে চেলসি তাদের দেখিনি আমি কখনও বাবার নাম ভাঙ্গিয়ে খেতে বা অপরাধমূলক কাজে জড়িত। হ্যা ,তাদের ভুলত্রুটি থাকতে পারে,সেটা আমি মানি। ওবামার মেয়ে তো সামারে নিজের হাত খরচের জন্য রেস্টুরেন্টে কাজ করেছে। কি বিশ্বাস হচ্ছে না, এই ছবিটা দিলাম। এই নিয়ে অবশ্য আমি আগেও লিখেছি।
বারাক ওবামার মেয়ে সাশা ওবামা রেস্টুরেন্টে কাজ করেছে অন্য আরো সাধারণের মতই। ম্যানেজার তাকে টেবিল মোছা থেকে শুরু করে অন্য সব কাজ করিয়েছে । অন্য এমপ্লয়ী যা করেছে সেও তাই করেছে ওবামার মেয়ে বলে তাকে কোন ছাড় দেওয়া হয়নি। আর সর্বোচ্চ ক্ষমতার অধিকারী বাবার সন্তান হয়ে ও সাশা এই কাজ করতে লজ্জা পায়নি, কাজকে কাজ মনে করেছে। মিশেল ওবামা ও তো মেয়েকে না করেনি , বরং তাকে কাজে উৎসাহিত করেছে। তাদের কি নেই ?? অর্থ, ক্ষমতা ,সুখ সাচ্ছন্দ সবই আছে।
তাহলে সাশা কেন কাজ করল ? অনেক গুলো কারন আছে, তার মধ্যে একটা হল এই বয়সে একটা ছেলে বা মেয়ে যখন বাস্তব অভিজ্ঞতার মুখোমুখি হবে সে জানবে জীবন কি , কত কঠিন। কত কষ্ট করতে হয়, এই কষ্টটাই, এই অভিজ্ঞতাই তাকে অন্য মানুষের কষ্ট বুঝতে সাহায্য করবে। সে যত শিক্ষিত হোক আর অর্থবিত্ত থাকুন না কেন এই দিনগুলো তাকে জীবন চিনতে সাহায্য করবে এটাই তার মনে হবে। বই পড়ে যা জানা যায়, বাস্তব অভিজ্ঞতা থেকে তার চেয়ে অনেক বেশী জানা যায়।
আর এইসব ছেলেমেয়েরা সাধারনত মানুষ হয়। শিক্ষিত হওয়া আর মানুষ হওয়া এক কথা নয়, অনেক শিক্ষিত মানুষকে ও অমানুষের মত কাজ করতে দেখেছি।
ক্লিনটনের মেয়ে চেলসিওকে ও তাই দেখেছি, দেখেছি বুশের মেয়েদের ও।
আর বিল গেটসের সন্তানদের কথা কি বলবো । তারা ও বাবার মতই উদার এবং পরিশ্রমী। ম্যালিন্ডা গেটস মানে বিল গেটসের ওয়াইফ সে সন্তাদের মানুষ করে গড়ে তুলেছে। তাদের সম্পদের তিন ভাগ তারা দান করে দেয় তাও নিজের সৎ ভাবে উপার্জন করা সম্পদ। এমন নয় যে পা এর উপর ঠ্যাং তুলে খাবো বাবার আছে আর কি । গার্ল ফেন্ড নিয়ে ফুর্তি করে উড়িয়ে দেবো সব ডলার।
এটাই পারিবারিক শিক্ষা। জীবনের শিক্ষা ।
অপচয় , বেহিসাবী জীবন তখনি গড়ে উঠে যখন প্রচুর অর্থবিত্ত অল্প বয়সে পেয়ে যায়। তাই বলবো সন্তানকে মানুষ হতে সাহায্য করুন, শুধু অর্থবিত্ত নয়, তাকে সঙ্গ দিন, সে কি চায় কেন চায় সেদিকে খেয়াল রাখুন। জীবনে পড়াশোনার দরকার আছে, আছে অর্থের প্রয়োজন।কিন্তু সবচেয়ে বেশী প্রয়োজন মানুষ হওয়া, মানবিক হওয়া।-লেখক: নিউ জার্সি , যুক্তরাষ্ট্র থেকে।