বিমান বন্দরের নিরপত্তা ব্যবস্থা উন্নত দেশের বিমান বন্দরের সমপর্যায়ের-মেনন

যুগবার্তা ডেস্কঃ গৃহীত নিরাপত্তা ব্যবস্থা এবং স্থাপনকৃত নিরাপত্তা সরঞ্জামাদি সম্পর্কে অবহিত করে বেসামরিব বিমান পরিবহন মন্ত্রী রাশেদ খান মেনন এমপি জানান, হযরত শাহজালাল বিমান বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা বিশ্বের উন্নত দেশসমূহের আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের সমপর্যায়ে উন্নীত হয়েছে। এবং নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে সার্বিক উন্নয়নে যুক্তরাজ্যের পরামর্শক প্রতিষ্ঠান ‘রেড লাইন সিকিউরিটিজ’চলতি বছরের মার্চ থেকে কাজ করছে।
তিনি আজ সকালে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের কনফারেন্স কক্ষে সাম্প্রতিক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে বন্দরের নিরাপত্তায় নিয়োজিত সংস্থাসমূহের কর্মকর্তাদের সাথে বৈঠক শেষে প্রেস ব্রিফিং-এ এ কথা বলেন।
গত ৬ তারিখের ঘটনাকে বিচ্ছিন্ন উল্লেখ করে মন্ত্রী জানান এতে বিমান বন্দরের কর্মকান্ডের কোন বিঘ্ন ঘটেনি, কোন সিডিউল পরিবর্তিত হয়নি।নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে অটুট ও নিশ্চিদ্র করতে আনসার সদস্য সোহাগ আলী সবচেযে মূল্যবান জীবন বিসর্জন দিয়েছেন। দায়িত্বপালনরত সকল নিরাপত্তা সংস্থার তৎপরতায অল্প সমযের মাঝে বিপজ্জনক ব্যক্তিকে আটক করা সম্ভব হযেছে, কোন যাত্রির ক্ষতি হতে দেয়া হয়নি। বিশ্বব্যাপি বিমান বন্দরের অনাকাংখিথ ঘটনার উল্লেখ করে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রের জেএফকে বিমান বন্দর, তুরস্কের কামাল আতাতুর্ক বিমান বন্দর, বেলজিয়ামের ব্রাসেলস বিমান বন্দরে আরও বড় ধরণের ঘটনা ঘটেছে কিন্তু তা সংশ্লিষ্ট দেশের উপর তেমন নেতিবাচক প্রতিক্রিয়া হয়নি, বাংলাদেশের ক্ষেত্রেও ঘটবে না বলে মন্ত্রী আশাবাদ ব্যক্ত করেন।
রাশেদ খান মেনন বলেন, সরকার বিমান বন্দরের নিরাপত্তা ব্যবস্থাকে সমুন্নত রাখতে সম্ভব সকল পদক্ষেপ নেবে। নিরাপত্তা কর্মকান্ড আরও নিবিড় করতে সিভিলি এভিয়েশনের মেম্বার অপারেশন মুস্তাফিজুর রহমানকে প্রধান করে একটি কমিটি করা হয়েছে।তিনি বিমান বন্দরে দায়িত্বপালনরত সকল সংস্থাসমূহকে সমন্বিতভাবে দায়িত্বপালনের অনুরোধ জানান যাতে একটি সংস্তার সাথে অন্য সংস্থার কোন গ্যাপের সৃষ্টি না হয়। এ জন্য নিয়মিতভাবে সমন্বয়সভা আয়োজন করতে তিনি সংশ্লিষ্টদের নির্দেশ দেন।
নিহত আনসার সদস্য সোহাগ আলীর প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে তিনি বলেন, সোহাগ আলী আমাদের জানিয়ে দিয়েছে, দেশপ্রেম ও দায়িত্ববোধ কাকে বলে। তিনি সোহাগ আলীর পরিবারেকে তাঁর পক্ষ থেকে ১ লাখ টাকা, সিভিল এভিয়েশনের পক্ষ থেকে ১ লাখ টাকা প্রদানের ঘোষণা দেন।
সভায় উপস্থিত ছিলেন মন্ত্রণালয়ের দাযিত্বপ্রাপ্ত সচিব স্বপন কুমার সরকার, সিভিল এভিয়েশনের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এহসানুল গণি চৌধুরী, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব এএইচএম জিয়াউল হক, সিভিল এভিয়শনের মেম্বর অপারেশন মুস্তাফিজুর রহমানসহ ডিজিএফআই, এসবি, এনএসআই, এপিবিএন, এ্যাভসেক, আনসার ও পুলিশের কর্মকর্তাবৃন্দ।