বিনোদন কেন্দ্রে মানুষের ঢল

42

এসএম মুন্না: ঈদের নামাজ আদায় করে আনন্দে মেতে উঠেছে রাজধানীবাসী। আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে ঘুরে-বেড়ানো, মজার মজার খাবার-দাবার উপভোগের পাশাপাশি নির্মল আনন্দের জন্য ভিড় জমাচ্ছেন বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে।

ঈদের দিন সোমবার রৌদ্রজ্জ্বল সকাল থেকে রাজধানীর শাহবাগের শিশুপার্ক, শ্যামলীর ডিএনসিসি ওয়ান্ডারল্যান্ড, ঢাকা চিড়িয়াখানা, আশুলিয়ার ফ্যান্টাসি কিংডম ও সাভারের নন্দন পার্কসহ সব বিনোদন কেন্দ্রে নানা বয়সী মানুষের ঢল নামে। রাস্তা ফাঁকা থাকায় রিকশা, গাড়ি বা মোটরসাইকেলে দাপিয়ে বেড়াচ্ছেন তরুণ-তরুণীরা। রাজধানীর শাহবাগ আর সোহরাওয়ার্দী উদ্যানে চলছে বন্ধুদের প্রাণের মেলা। খণ্ড খণ্ড জটলায় চলছে বিরামহীন আড্ডা। নাটক সরনি, গুলশান, বনানী, বারিধারা, উত্তরার রেস্টুরেন্টগুলোও সরগরম হয়ে উঠেছে।

জাতীয় সংসদ ভবনের দক্ষিণ প্লাজায় ঘুরতে যাচ্ছেন অনেকে। নগরীর নান্দনিক স্থাপনা হাতিরঝিলও লোকারণ্য। সন্ধ্যার ছিল মিউজিক্যাল ওয়াটার ড্যান্স ও বর্ণিল আলোর খেলা। আশেপাশের এলাকার মানুষ ছাড়াও বিভিন্ন এলাকা থেকে আসা মানুষ ভিড় জমাচ্ছেন এখানে। মধ্যরাত পর্যন্ত চলবে আড্ডা, খাওয়া-দাওয়া আর ছবি তোলা।

শিশুপার্ক: গত কয়েক ঈদে বৃষ্টির বাগড়ায় মাটি হয়েছিল আনন্দ। এবারও সেই সতর্কবার্তা দিয়েছিল আবহাওয়া অফিস। কিন্তু বৃষ্টি নামেনি; সারা দিনই ছিল রোদ। তাই সকাল থেকে ভিড় বাড়তে থাকে শিশু পার্কে। দলে দলে শিশুরা অভিভাবকদের হাত ধরে আসে এখানে। বায়না ধরে রাইডে চড়ার। তবে একেকটি রাইডে উঠতে এক থেকে দেড় ঘণ্টা করে অপেক্ষা করতে হচ্ছে।

প্রাইম মাল্টিমিডিয়া কমিউনিকেশনের উপ ব্যবস্থাপক জসিম মাহমুদ নিজের ছেলে ও এক ভাগ্নিকে নিয়ে পার্কে এসেছেন ঈদের নামাজ শেষ করে। তিনি বলেন, ‘এদিকে এক আত্মীয়ের বাসা বেড়াতে এসেছিলাম। এক ফাঁকে বাচ্চা দুটিকে নিয়ে পার্ক ঘুরে গেলাম। দীর্ঘ লাইন কিছুটা বিরক্তি দিয়েছে। তা ছাড়া সবকিছু ভালোই লাগলো।’

শিশু পার্কের সহকারী প্রকৌশলী মোহাম্মদ নুরুজ্জামান সমকালকে বলেন, ‘যতক্ষণ পর্যন্ত দর্শনার্থী পার্কের ভেতরে রাইডে চড়ার জন্য লাইন দিয়ে থাকবে ততক্ষণ পার্ক খোলা থাকবে। ঈদের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার সকাল ৯টা থেকে খোলা থাকবে পার্ক। ঈদের তৃতীয় দিন বুধবার সুবিধাবঞ্চিত শিশুরা বিনামূল্যে পার্কে প্রবেশ ও রাইডে চড়ার সুযোগ পাবে।’

এখানে ১১টি রাইড রয়েছে। প্রবেশ মূল্য ১৫ টাকা। রাইডের চড়ার টিকিট ১০ টাকা।

ঢাকা চিড়িয়াখানা: সকাল থেকে মিরপুরের ঢাকা চিড়িয়াখানায় নেমেছে মানুষের ঢল। ভিড় এড়াতে বাড়তি ৫টি টিকিট কাউণ্টার খোলা হয়েছে। দর্শনার্থীরা ভিড় করছেন জলহস্তি, ইম্পালা, জিরাফসহ বড়প্রাণীর খাঁচার সামনে। কারণ এসব প্রাণী বাচ্চা দিয়েছে। ঈদের দ্বিতীয় দিন মঙ্গলবার সকাল ৮টা থেকে সন্ধ্যা ৬টা পর্যন্ত খোলা থাকবে চিড়িয়াখানা। তবে টিকিট বিক্রি ৫টায় বন্ধ হয়ে যাবে। প্রবেশমূল্য ৩০ টাকা। চিড়িয়াখানার কিউরেটর এস এম নজরুল ইসলাম সমকালকে বলেন, ‘প্রথম দিন আশাতীত লোকের সমাগম হয়েছে। মঙ্গলবার দেড় থেকে দুই লাখ দর্শনার্থী আসবে বলে আশা করছি।’

ফ্যান্টাসি, কিংডম, নন্দন ও যমুনা ফিউচার পার্ক: রাজধানীর অদূরে আশুলিয়ার ফ্যান্টাসি কিংডমে মেতেছে তরুণরা। বন্ধুদের নিয়ে ফ্যান্টাসি কিংডমের আকর্ষণীয় রাইডে চড়ার পাশাপাশি ওয়াটার কিংডমের ঠাণ্ডা পানিতে ঝাপাঝাপি করে আনন্দ উপভোগ করছেন তারা। ঘুরে বেড়াচ্ছেন এই বিনোদন কমপ্লেক্সের অপর কেন্দ্র হেরিটেজ পার্কে। সমকালকে এ তথ্য জানান এটি পরিচালনাকারী কনকর্ড এন্টারটেইমেন্টর হেড অব মিডিয়া অ্যান্ড পিআর মাহফুজুর রহমান টুটুল। ঈদের পর আরও ছয়দিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে ফ্যান্টাসি কিংডম।

এখানে বড়দের প্রবেশমূল্য ৪০০ টাকা। ছোটদের ৩৫০ টাকা। ফ্যান্টাসি কিংডমে প্রবেশসহ ৮০০ টাকার টিকেট কেটে সাঁতার কাটা যায় ওয়াটার কিংডমে। একই সঙ্গে ওয়েভপুল, লেজি রিভার, টিউব স্লাইড, ওয়াটারপুলসহ বিভিন্ন রাইডে চড়া যাবে। ফ্যান্টাসি কিংডমের ভেতরেই রয়েছে হেরিটেজ পার্ক। এখানে দেখা যায় ঐতিহাসিক স্থাপনা।

সাভার নবীনগরের মহাসড়ক ঘেষে জামগড়াস্থ বারইপাড়ায় অন্যতম আরেক বিনোদন কেন্দ্র নন্দন পার্কে চলছে ঈদ আনন্দ উৎসব। সকাল থেকে দর্শনার্থীরা ভিড় জমাচ্ছেন এখানে। এ তথ্য জানান নন্দন পার্কের হেড অব মার্কেটিং মোহাম্মদ মেজবাহউদ্দিন প্রিন্স। তিনি বলেন, ‘ঈদের দিন মোটামুটি জমলেও, মঙ্গলবার থেকে বেশি জমে উঠবে নন্দন পার্ক। নন্দন ওয়াটার ওয়ার্ল্ড ও ড্রাই পার্কে ঈদ উপলক্ষে বিশেষ প্যাকেজ ঘোষণা করা হয়েছে। সাধারণ প্রবেশ মূল্য ২৯৫ টাকা। সব রাইড উপভোগ করতে লাগবে জনপ্রতি (খাবারসহ) ৮৯৫ টাকার মতো। খাবার ছাড়া জনপ্রতি ৬৯৫ টাকা। ঈদের বিশেষ প্যাকেজ ৬১০ টাকা। ওয়াটার ওয়ার্ল্ড ও ড্রাই পার্কের সব রাইডও উপভোগ করা যাবে এই প্যাকেজের আওতায়।’

ঈদ উপহার হিসেবে পার্কে প্রবেশের সময় একটি বিশেষ ডিসকাউন্ট কার্ড দেওয়া হচ্ছে। যা পরবর্তী একটি নির্দিষ্ট হারে টিকিটের ছাড় দেওয়া হবে। এটি প্রতিদিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে। অন্য দিকে রাজধানীর যমুনা ফিউচার পার্কও জমে উঠেছে।

ডিএনসিসি ওয়ান্ডারল্যান্ড: মিরপুর মোহাম্মদপুর ও আশপাশের এলাকার শিশু-কিশোরদের পছন্দের বিনোদন কেন্দ্র শ্যামলীতে ডিএনসিসি ওয়ান্ডারল্যান্ড (সাবেক শিশুমেলা)। এখানে আছে ৪০টির মতো রাইড। পরিবারের সকলের চড়ার মতো আছে ১৫টি রাইড। কর্তৃপক্ষ জানায়, ঈদের প্রথম সাত দিন সকাল ১০টা থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত খোলা থাকবে ওয়ান্ডল্যান্ড। প্রবেশ মূল্য জনপ্রতি ৫০টাকা।

এসবের বাইরে ছোট-বড় আরও বহু বিনোদনকেন্দ্রে এখন নানা বয়সী মানুষের পদচারণায় মুখর। বিনোদন কেন্দ্রগুলোতে অপ্রীতিকর ঘটনা এড়াতে নেওয়া হয়েছে কঠোর নিরাপত্তার ব্যবস্থা।

মুক্তি পেলো আলোচিত দুই চলচ্চিত্র: ঈদ উপলক্ষে নতুন ছবি মুক্তি পাওয়ায় বসুন্ধরার স্টার সিনেপ্লেক্স, বলাকা সিনেপ্লেক্স, বিনাকা, রাজমণি, সনি, যমুনা ফিউচার পার্কের ব্লকবাস্টারসহ প্রেক্ষাগৃহগুলোতে নেমেছে সিনেমাপ্রিয় মানুষের ঢল। ঈদের দিন দেশের ২ শতাধিক প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে শাকিব খান অভিনীত ‘নবাব’ এবং নুসরাত ফারিয়ার ‘বস টু’ চলচ্চিত্র। জাজ মাল্টিমিডিয়া এবং ভারতের একটি প্রযোজনা প্রতিষ্ঠান প্রযোজিত এই দুটি ছবিকে কেন্দ্র করে বেশ কিছুদিন ধরে সরগরম চলচ্চিত্র অঙ্গন।-সমকাল