বাল্য বিয়ে দেয়ায় পিতার ১৫ দিনের কারাদন্ড

মোংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ কন্যা হাফিজাকে বাল্য বিয়ে দেয়ায় পিতা আঃ হালিমকে ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড দিয়েছেন মোংলার ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ আবু সুফিয়ান। ঘটনাটি ঘটেছে মোংলা উপজেলার সুন্দরবন ইউনিয়নের কচুবুনিয়া গ্রামে।
মঙ্গলবার দুপুরে স্থানীয় জনসাধারন এবং উপজেলা মহিলা বিষয়ক কর্মকর্তার কাছ থেকে জানতে পেরে পুলিশসহ ঘটনাস্থল মোংলা সদর থেকে ২২ কিলোমিটার দুরে কচুবুনিয়া গ্রামে উপস্থিত হন ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহি অফিসার সহকারি কমিশনার ( ভূমি ) নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মোঃ আবু সুফিয়ান। নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট সরেজমিনে যেয়ে তিনি জনতে পারেন কচুবুনিয়া দাখিল মাদ্রাসার ৮ম শ্রেনীর ছাত্রী হাফিজাকে ( ১৫ ) বাল্য বিয়ে দিয়েছেন তার পিতা আঃ হালিম। বর-বউ সবেমাত্র বিয়ে বাড়ী ত্যাগ করেছে। এমতবস্থায় কনে হাফিজার পিতা আঃ হালিমকে বিয়ে বাড়ী থেকে পুলিশের সহযোগিতায় আটক করে বাল্য বিয়ে নিরোধ আইন ১৯২৯ এর ৬(১) ধারায় ১৫ দিনের বিনাশ্রম কারাদন্ড প্রদান করেছেন নির্বাহি ম্যাজিস্ট্রেট মোংলা উপজেলার ভারপ্রাপ্ত নির্বাহি অফিসার মোঃ আবু সুফিয়ান। এ বিষয়ে জানতে চাইলে ভারপ্রাপ্ত উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ আবু সুফিয়ান বলেন সমাজকে পঙ্গু করার অপরাধে এবং বাল্য বিয়ে মুক্ত সমাজ গঠন করতে কন্যা হাফিজার পিতা আঃ হালিমের এই শাস্তি অনিবার্য ছিলো। এই ধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে। আশা করি সকলে সহযোগিতা করবেন।