বানিজ্যিক কোচিং বন্ধ এবং নোট, গাইড বই নিষিদ্ধের দাবিতে শিক্ষকদের মানববন্ধন

160

যুগবার্তা ডেস্কঃ সকল বানিজ্যিক কোচিং বন্ধ এবং পাঠ্যপুস্তকের বাইরে সকল নোট, গাইড বই নিষিদ্ধ করার দাবিতে মানববন্ধন করেছে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষকরা।
শনিবার সকালে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে ঘন্টাব্যাপী মানববন্ধনে শিক্ষকরা বলেন, বর্তমানে শিক্ষার্থীরা ক্লাসে মনোযোগী নয়। তারা রঙ বেরঙের কোচিংয়ে ছুটছে। কোচিংয়ের পড়ার চাপে তারা স্কুলের পড়া প্রস্তুত করতে সময় পায়না। পিইসি এবং জেএসসি পরীক্ষার তিন মাস আগে থেকে স্কুলগুলোতে উপস্থিতি কমে যাচ্ছে। শিক্ষার্থীরা বিভিন্ন বানিজ্যিক কোচিংয়ে মডেল টেস্ট দিতে ব্যস্ত। ফলে শিক্ষার মান কমে যাচ্ছে।

বক্তারা আরো বলেন, সরকার নোট, গাইড নিষিদ্ধ করছে। তারপরও বাজারে প্রকাশ্যে গাইড বিক্রি হচ্ছে। শিক্ষক গাইড পড়ালে তার জেল-জরিমানার বিধান রয়েছে। কিন্তু গাইড কোম্পানীর বিরুদ্ধে সরকারের কোনো নজরদারি নেই। ঢাকা শহরের বিভিন্ন জায়গায় শিক্ষকদের হয়রানি নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করে বক্তারা আরো বলেন, কয়েকদিন যাবত শিক্ষকদের বাসা-বাড়িতে গিয়ে তল্লাশি করা হচ্ছে। তারা কোচিং করছে কিনা সে তথ্য নেয়া হচ্ছে। অথচ বিভিন্ন কোম্পানি কোচিং বানিজ্য করছে, প্রশ্ন ফাঁস করছে। তাদের বিরুদ্ধে কোনো কার্যকর ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে না।
শিক্ষক অধিকার ফোরামের আহবায়ক মো: রাসেদের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে বক্তারা আরো বলেন, সরকার শিক্ষকদের বেতন বৃদ্ধি করলেও সে অর্থ বাড়িওয়ালাদের পকেটে চলে যাচ্ছে। শিক্ষকরা কোনো মতে জীবন নির্বাহ করছে। বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন কার্যকর করা হচ্ছেনা। অথচ শিক্ষা আইন পাস করার আগেই শিক্ষকদের হয়রানি করা হচ্ছে। শিক্ষা আইন পাস করার আগে বাড়িভাড়া নিয়ন্ত্রণ আইন কার্যকর করার দাবিও জানানো হয়।
মানববন্ধনে আরো বক্তব্য রাখেন শিক্ষক নেতা রফিকুল ইসলাম জাহিদ, মো: আতিকুর রহমান, মো: শাহ আলম, মো: রাকিবুল হাসান, মো: ফয়সল শামীম, কামরুল ইসলাম, খন্দকার জুয়েল, কামরুজ্জামান, মো: ফারুক হোসেন প্রমুখ।