Home শিক্ষা ও ক্যাম্পাস বর্ণাঢ্য আয়োজনে নোবিপ্রবি অফিসার্স এসোসিয়েশনের এক দশকপূর্তি উদযাপিত

বর্ণাঢ্য আয়োজনে নোবিপ্রবি অফিসার্স এসোসিয়েশনের এক দশকপূর্তি উদযাপিত

15

নোবিপ্রবি প্রতিনিধি: নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে(নোবিপ্রবি) নানা আয়োজনে অফিসার্স নাইট-২০২৪ উদযাপিত হয়েছে।

শনিবার(১০ ফেব্রুয়ারি) বিশ্ববিদ্যালয়ের অফিসার্স এসোসিয়েশনের এক দশক পূর্তি ও নতুন কার্যনির্বাহী কমিটির সংবর্ধনা উপলক্ষে এ অনুষ্ঠানটির আয়োজন করা হয়।

দিনটি উপলক্ষে বিভিন্ন ধরনের ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, র‍্যাফেল ড্র,সংবর্ধনা অনুষ্ঠান, স্পেশাল ডিনার ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেন বিশ্ববিদ্যালয় অফিসার্স এসোসিয়েশন। এসময় হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস অডিটোরিয়ামের পাশে ফুসকা,চটপটি,বেলপুরি,চা-কফি ও
নানান জাতীয় পিঠার স্টল স্থাপন করা হয়।
এতে বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তাবৃন্দ টোকেন গ্রহনের মাধ্যমে সপরিবারে অংশ গ্রহন করেন।

নোবিপ্রবি রেজিস্ট্রার মো.জসীম উদ্দীনের সভাপতিত্বে ও সাবেক সভাপতি সাখাওয়াত হোসেনের সঞ্চালনায়
অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. দিদার-উল-আলম। বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন সাবেক উপাচার্য এ কে এম সাঈদুল হক চৌধুরী,উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড. আব্দুল বাকী,কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড.নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর, অফিসার্স এসোসিয়েশনের সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন পলাশ ও সাধারণ সম্পাদক ইবনে ওয়াজেদ ইমন। এছাড়াও,অফিসার্স এসোসিয়েশনের নব নির্বাচিত কমিটির সদস্যবৃন্দ,বিভিন্ন দপ্তরে কর্মরত কর্মকর্তাবৃন্দ ও বিভিন্ন গণমাধ্যমে কর্মরত সাংবাদিকরা উপস্থিত ছিলেন।

অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন সাধারণ সম্পাদক ইবনে ওয়াজেদ ইমন বলেন,আজকের এ সুন্দর প্রোগাম আয়োজনে উপাচার্যের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।পাশাপাশি গত ২৮ তারিখ সুষ্ঠুভাবে ভোট আয়োজন করায় সংশ্লিষ্ট সকলকে ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি। সেই সাথে আজকের এ সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে যারা কাজ করেছেন তাদেরকে ধন্যবাদ জানাচ্ছি ।পাশাপাশি যারা ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে আমাকে মনোনীত করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।

অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশন সভাপতি মেজবাহ উদ্দিন পলাশ বলেন,আজকের অনুষ্ঠানের সুন্দর পরিবেশ প্রদানের জন্য বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি। পাশাপাশি গত, ২৮ তারিখে ভোট বিপ্লবের মাধ্যমে যারা আমাদের নির্বাচিত করেছেন তাদের প্রতি কৃতজ্ঞতা ও ভবিষ্যত কাজের জন্য সকলের সহযোগিতা কামনা করছি।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার জসীম উদ্দীন বলেন, রেজিস্ট্রার বলেন,বর্তমানে যারা দায়িত্বে এসেছেন আপনারা এমন ভাবে কাজ করবেন যাতে করে পরবতীতে যারা ক্ষমতায় আসবে তাদের জন্য আপনারা অনুকরণীয় হয়ে থাকতে পারেন। এসময় বিশ্ববিদ্যালয় কে এগিয়ে নিতে সকলের সহযোগিতা কামনা করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের কোষাধ্যক্ষ অধ্যাপক ড. নেওয়াজ মোহাম্মদ বাহাদুর বলেন,শিক্ষক, কর্মকর্তা,কর্মচারী এক অন্যের পরিপূরক। শরীরের একটি অঙ্গ অসুস্থ হলে যেমন পুরো শরীরে সেটি অনুভূত হয়। ঠিক তেমনি বিশ্ববিদ্যালয়ের কেউ ক্ষতিগ্রস্থ হলে সকলের জন্য সেটি ক্ষতি কারন হয়ে যায়। ইতিমধ্যেই আমরা ডি নথি-ডিজিটাল আইডি কার্ড সহ, বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষণা কাজে আমরা এগিয়ে যাচ্ছি এটি সম্ভব হয়েছে আপনাদের সকলের আন্তরিকতা ও সহযোগিতা কারণে।

উপ-উপাচার্য অধ্যাপক ড.মোহাম্মদ আব্দুল বাকী বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিবারের সকলকে নিয়ে আমরা যেনো ভালো থাকতে পারি সেজন্য এ ধরনের আনন্দ মুখর পরিবেশ খুবই প্রয়োজন । সকলেই পরিবার নিয়ে সমবেত হতে পারি সেই আশাবাদ ব্যক্ত করছি।

সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এ কে এম সাঈদুল হক চৌধুরী বলেন,নোবিপ্রবির বুকে জাঁকজমকপূর্ণ এ পরিবেশে আজকের আয়োজন ভিন্ন পরিবেশ এনে দিয়েছে । অফিসার্স অ্যাসোসিয়েশনের সকল কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে এটি আরও প্রাণবন্ত এনে দিয়েছে। সকলের প্রতি আমরা ধন্যবাদ জ্ঞাপন করছি এ নিয়ে নোবিপ্রবিতে কয়েকবার আসা হলো ভবিষ্যতেও সকলের মধ্যে এ বন্ধন অটুট থাকুক, বিশ্ববিদ্যালয় আরও এগিয়ে যাক। জয় বাংলা জয় বঙ্গবন্ধু।

নোবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড.দিদার-উল-আলম বলেন,বিশ্ববিদ্যালয়ের সকলেই একসাথে কাজ করে যাবেন। সকলেই এক হয়ে কাজ করলে বিশ্ববিদ্যালয় আরও এগিয়ে যাবে। আজকের এ ধরনের জাকজমকপূর্ণ আয়োজনে সংশ্লিষ্ট দের প্রতি ধন্যবাদ জানিয়ে ভবিষ্যতে এ ধরনের আয়োজন অব্যাহত রাখতে সকলের প্রতি আহবান জানান।