বরিশালে ডুবে যাওয়া লঞ্চ উদ্ধারঃ নিহতের সংখ্যা বেড়ে ১৮

বরিশাল অফিসঃ জেলার বানারীপাড়া উপজেলার সন্ধ্যা নদীতে ডুবে যাওয়া লঞ্চটি আজ সকালে উদ্ধার করা হয়েছে। গতকাল বুধবার সৈয়দকাঠি ইউনিয়নের মসজিদ বাড়ি সংলগ্ন সন্ধ্যা নদীতে এমএল ঐশী-২ নামে যাত্রীবাহী লঞ্চডুবির ঘটনায় মোট শিশুসহ এ পর্যন্ত ১৮ জনের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে। ।

বরিশাল ফায়ার সার্ভিসের সহকারী পরিচালক ফারুক হোসেন সিকদার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। আজ সকাল সাড়ে ৮টা নাগাদ বিআইডব্লিউটিএ জাহাজ নির্ভীক এ উদ্ধার কাজ সম্পন্ন করেন।

এ ঘটনায় এখনো ৯ যাত্রী নিখোঁজ রয়েছে বলে জানা গেছে।

যাত্রীদের মধ্যে পাঁচজন সাঁতরে তীরে উঠতে সক্ষম হয়েছেন বলে স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে। এর আগে বুধবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে এ দুর্ঘটনা ঘটে। উদ্ধার হওয়াদের মধ্যে একজন হলেন কহিনুর বেগম। তিনি বরিশালের মজিবুর রহমানের স্ত্রী।

এদিকে বেঁচে যাওয়া যাত্রী সিদ্দিকুর রহমান ও তার স্ত্রী রোকসানা বেগম জানিয়েছেন, লঞ্চে অর্ধশতাধিক যাত্রী ছিলেন। লঞ্চটি বানারীপাড়া থেকে আক্তারপাড়া যাচ্ছিল। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে দাসেরহাট বাজারের মসজিদ বাড়ি ঘাটে যাত্রী ওঠানোর সময় নদী তীরের বিশাল অংশ ভেঙে যাওয়ায় তীব্র স্রোতের সৃষ্টি হয়। এসময় যাত্রীরা তাড়াহুড়ো করে এক পাশে আসলে লঞ্চটি ডুবে যায়।