বন্যার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান : বাসদ

106

যুগবার্তা ডেস্কঃ সরকার এবং বাসদের নেতাকর্মীদের বন্যাকবলিত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর আহ্বান জানিয়েছেন বাসদ নেতৃবৃন্দ। তারা বলেন, বন্যাকবলিত মানুষের চরম দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে সরকার নির্লিপ্ত ও উদাসীন রয়েছে। এ পরিস্থিতিতে আপনারা দুর্গত মানুষের পাশে দাড়ান। শনিবার গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে বাসদ নেতৃবৃন্দ একথা বলেন।

শুক্র ও শনিবার দলের কেন্দ্রীয় কমিটির বৈঠকে নেতৃবৃন্দ এই কথা বলেন। রাজধানীর তোপখানা রোডে দলের ভারপ্রাপ্ত আহ্বায়ক কমরেড সন্তোষ গুপ্ত এর সভাপতিত্বে বৈঠকে দেশের সর্বশেষ রাজনৈতিক ও দলের সাংগঠনিক বিষয়ে বিস্তারিত আলোচনা হয়। বৈঠকে উপস্থিত নেতৃবৃন্দ মধ্যে বক্তব্য রাখেন কমরেড শওকত হোসেন আহমেদ, মহিনউদ্দিন চৌধুরী লিটন ও ওয়াহিদুজ্জামান প্রমূখ।

নেতৃবৃন্দ, বন্যাউপদ্রুত অঞ্চলসমূহে খাদ্য ও সুপেয় পানির ব্যাপক সংকট ও বানভাসি মানুষদের অবর্ণনীয় দুর্দশায় গভীর উদ্বেগ প্রকাশ করেন। নেতৃবৃন্দ বলেন, দেশের উত্তরাঞ্চলসহ অন্যান্য জেলায় ভয়াবহ বন্যায় মানুষের প্রাণহানি, হাজার হাজার বাড়িঘর বিধ্বস্ত, ফসলি জমি ও ফসলের ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতিতে বিপন্ন বন্যাকবলিত মানুষদের প্রতি দেশবাসীর মতো আমরাও গভীরভাবে মর্মাহত। এহেন প্রাকৃতিক দুর্যোগ বন্যার পানিতে ডুবে মৃত্যুবরণকারীদের পরিবার পরিজন এবং দুঃখ দুর্দশায় পতিত বেঁচে থাকা মানুষের সহানুভূতি জানানোর ভাষা আমাদের জানা নেই।

নেতৃবৃন্দ বলেন, বন্যাকবলিত এলাকায় অনেক রাস্তাঘাট তলিয়ে গেছে, শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শিক্ষা কার্যক্রম বন্ধ হয়ে গেছে। নদী ভাঙ্গনে গ্রামের পর গ্রাম নদীগর্ভে বিলীন হয়ে যাচ্ছে। বন্যা নিয়ন্ত্রণ বাঁধ, হাটবাজার নদী ভাঙনের শিকার হচ্ছে।

নেতৃবৃন্দ, বেঁচে থাকার জন্য খাদ্য, সুপেয় পানি ও ওষুধের তীব্র সংকটে বন্যাকবলিত মানুষ চরম দুর্ভোগের মধ্যে পড়েছে। এই রকম দুর্যোগময় পরিস্থিতিতে সরকার নির্লিপ্ত ও উদাসীন। বন্যাকবলিত এলাকায় দুর্গত মানুষের সাহায্যার্থে এখন পর্যন্ত ত্রাণ তৎপরতায় সরকার কোনো কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ করেনি। সরকারের সর্বনাশা নীতির কারণেই বেহাল রাস্তাঘাট, অসহনীয় বিদ্যুৎ বিভ্রাট এবং লাগামহীন দ্রব্যমূল্যের ঊর্ধ্বগতি, অসহনীয় মুদ্রাস্ফীতিতে দেশ আজ বিপন্ন। তার ওপর এই বন্যার ভয়াবহ ব্যাপকতা বন্যাকবলিত মানুষকে চরম সংকটের দিকে ঠেলে দেবে।