বন্ধ কারখানা খুলে দেওয়ার দাবীতে বিক্ষোভ সমাবেশ ও লাল পতাকার মিছিল

104

যুগবার্তা ডেস্কঃ জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশনের নেতৃবৃন্দ ও হান এ হ্যাট্স এন্ড ক্যাপস এর শ্রমিক প্রতিনিধিরা অবিলম্বে অনিদিষ্টকালের নোটিশ প্রত্যাহারসহ বন্ধ কারখানা খুলে দেওয়ার দাবীতে বুধবার দুপরে জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে অনুষ্ঠিত বিক্ষোভ সমাবেশ করেছেন ।
উল্লেখ্য যে আশুলিয়ার বুড়ির বাজার রোডে অবস্থিত হান এ হ্যাট্স এন্ড ক্যাপস এ ছয় শতাধিক শ্রমিক কাজ করে । উক্ত কারখানার কোয়ালিটি ইনচার্জ হোসনা বেগম, শ্রমিকদের চাকুরী স্থায়ীকরণ ও বাৎসরিক বেতন বৃদ্ধিও কথা বলে শ্রমিকদের কাছ থেকে এক হাজার থেকে পনেরশত টাকা পর্যন্ত আদায় করে। যে সকল শ্রমিক টাকা দিতে অপারগতা প্রকাশ করে হোসনা বেগম শ্রমিকদের মারধর করে এমনকি চাকুরি চুত্য করে। শ্রমিকেরা এর প্রতিবাদ করলে গত ১৬ই সেপ্টেম্বর ২০১৫ ইং তারিখে কারখানা কতৃপক্ষ বের করে দেয় । কারখানা কতৃপক্ষ উক্ত হোসনা বেগমকে গত ৫/১০/২০১৫ ইং তারিখে আবার ও কারখানায় নিয়োগ দেয়। শ্রমিকেরা উক্ত হোসনা বেগমকে কারখানায় নিয়োগ না দেওয়ার জন্য কারখানা কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ করেন। কারখানার পরিচালক শ্রমিকদের জানায় তোমরা ছয়শত শ্রমিক কাজ না করলেও উক্ত হোসনা বেগমকে আমাদের প্রয়োজন এরপর পরিচালক ফ্লোর থেকে চলে যায় এবং কারখানা কর্তৃপক্ষ শ্রমিকদের ছুটি দিয়ে দেয় । এর পরের দিন গত ৬/১০/২০১৫ ইং তারিখে কারখানার সামনে গেলে কারখানা অনিদৃষ্ট কালের জন্য বন্ধ নোটিশ দেখতে পায় ।শ্রমিকরা বারবার চেষ্টা করে ও কারখানা কর্তৃপক্ষের সাথে যোগাযোগ করতে পারে নাই ।
জাতীয় গার্মেন্টস শ্রমিক ফেডারেশন এর সভাপতি আমিরুল হক আমিনের সভাপতিত্বে কর্মসূচী পরিচালনা করেন বাচ্চু মিয়া। সমাবেশে হান এ হ্যাট্স এন্ড ক্যাপসএর তিন শতাধিক শ্রমিক অংশ নেয়। কর্মসূচীতে বক্তব্য রাখেন ফেডারেশনের সাধারন সম্পাদক সাফিয়া পারভীন, কেন্দ্রীয় নেতা নুরুননাহার, কবির হোসেন ,নাছিমা আক্তার , মোঃ ফরিদুল ইসলাম,মোঃ রফিক, এবং হান এ হ্যাট্স এন্ড ক্যাপস এর শ্রমিক সাহিদা আক্তার, লিপি আক্তার ও মোঃ জামালসহ প্রমুখ।
সংহতি বক্তব্য রাখেন ইন্ডাষ্ট্রিঅল শ্রমিক ফেডারেশন বাংলাদেশ কাউন্সিলের মহাসচিব জনাব বাবুল আক্তার , বাংলাদেশ কাউন্সিলের কেন্দ্রীয় নেত জনাব সালাহ উদ্দীন স্বপন, রাশেদুল আলম রাজু , গিয়াস উদ্দীন আহম্মেদ,
বক্তারা অবিলম্বে হান এ হ্যাট্স এন্ড ক্যাপস খুলে দেওয়া এবং অধিযুক্ত হোসনা বেগম যদি কোন অনৈতিক কাজে জড়িত থাকে তাকে কারখানায় নিয়োগ না দেওয়ার দাবী জানান।
সমাবেশ শেষে শ্রমিকরা একটি মিছিল নিয়ে হাইকোট মোড়, পররাষ্ট্র মন্ত্রনালয় ও তোপখানা রোড এলাকা প্রদক্ষিন করেন।