বডি স্প্রে ব্যবহার কতটুকু উপকারী?

72

যুগবার্তা ডেস্কঃ ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে প্রতিদিনই ব্যবহার করা হয় হরেক রকমের বডি স্প্রে। এসব বডি স্প্রে বিভিন্ন সুগন্ধের হয়ে থাকে। এসব সুগন্ধী আমাদের ঘামের দুর্গন্ধতো ঢাকতে পারে, কিন্তু তা আমাদের শরীরের জন্য কতটুকু উপকারী? এটা এখন বিশেষজ্ঞদের চিন্তা ও গবেষণার বিষয়।
যুক্তরাষ্ট্রের গবেষকরা বলছেন, ঘামের দুর্গন্ধ দূর করতে যে সব সুগন্ধী ডিওডোরেন্ট বা স্প্রে ব্যবহার করা হয় তা শরীরে বসবাসকারী ব্যাকটেরিয়ার উপর প্রভাব ফেলে। বগলে বসবাসকারী ব্যাকটেরিয়ার জীবনের জন্যও তা হুমকির সৃষ্টি করে।
বিশেষজ্ঞরা এখনও সঠিক করে বলতে পারছেন না যে, ডিওডোরেন্টের ব্যবহারে শরীরের কতটুকু ক্ষতি হয়। তবে তাদের দাবি এর ব্যবহারে শরীরে বসবাসকারী প্রাকৃতিক অণুজীবের ক্ষতি হয়।
নর্থ ক্যারোলিনা স্টেট ইউনিভার্সিটির ইকোলজিস্ট রব ডান বলেন, শরীরে বসবাসকারী হাজারো ব্যাকটেরিয়া আমাদের জন্য অনেক উপকারী, বিশেষ করে বগলে বসবাসকারী ব্যাকটেরিয়া অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখে। ব্যবহৃত ডিওডোরেন্ট এগুলোর উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে বলে দাবি করেন তিনি।
ডিওডোরেন্ট ব্যবহারে জীবাণু প্রতিরোধী উপকারী ব্যাকটেরিয়ার উপর কি প্রভাব পড়ে তা নিয়েই এখন গবেষণা চলছে।
সম্প্রতি বিশেষজ্ঞরা ১৭ জন অংশগ্রহণকারীর ওপর এ বিষয়ে এক বিশেষ গবেষণা পরিচালনা করেন।
এই গবেষণায় অংশগ্রহণকারীদের কয়েকজন ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করেন। আর কয়েকজন তা ব্যবহার না করে প্রতিদিন দু’বার করে বগল পানি দিয়ে মুছে নেন। গবেষণার শেষ দিনে অংশগ্রহণকারী সবাইকেই ডিওডোরেন্ট ব্যবহারের সুযোগ দেয়া হয়।
গবেষণা শেষে প্রাপ্ত ফলাফল সম্পর্কে নর্থ ক্যারোলিনা সেন্ট্রাল ইউনিভার্সিটির গবেষক জুলি হোর্ভার্থ বলেন, যারা নিয়মিত ডিওডোরেন্ট ব্যবহার করেছেন তাদের তুলনায় যারা ব্যবহার করেননি তাদের শরীরে ক্ষতিকর অণুজীবের উপস্থিতি কম ছিল।
প্রাপ্ত ফলাফল সাপেক্ষে হোর্ভার্থের মন্তব্য- ডিওডোরেন্ট আমাদের শরীরের দুর্গন্ধ ঢাকতে পারলেও পরোক্ষভাবে তা শরীরে ক্ষতিকর অণুজীবেরই বংশ বৃদ্ধিতে সহায়তা করে।
তাই ডিওডোরেন্ট ব্যবহারে নিজের শরীরের দুর্গন্ধ ঢাকবেন, নাকি প্রতিদিন পরিস্কার পরিচ্ছন্নতার মাধ্যমে জীবাণু থেকে বেঁচে থাকবেন তাই এখন ভাববার বিষয়।