পুলিশ সাংসদের কোনো তোয়াক্কাই করছে না-বাদশা

38

রাজশাহী অফিসঃ “পুলিশ সাংসদের কোনো তোয়াক্কাই করছে না। তারা মনে করছে, সাংসদ আবার কে? পুলিশ কি সাংসদের ঊর্ধ্বে? সাংসদ না থাকলে একটা দেশ থাকে না। দেশ না থাকলে পুলিশও থাকে না।”
রাজশাহীতে সাম্প্রতিক কয়েকটি খুনের ঘটনায় পুলিশ কোনো মতামত না নেওয়ায় সোমবার দুপুরে এক সংবাদ সম্মেলনে এভাবেই নিজের ক্ষোভ প্রকাশ করেন রাজশাহীর সদর আসনের সাংসদ ও বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা।
বাদশা বলেন, জনপ্রতিনিধিদের কাছে জনগণের মতামত থাকে। কিন্তু চারটি খুন হওয়ার পরেও রাজশাহীর পুলিশ জনপ্রতিনিধি হিসেবে তাঁর সঙ্গে কোনো কথা বলেনি। মতামত নেওয়ার প্রয়োজনবোধ করেনি। জনপ্রতিনিধির নির্দেশনা থাকে। পুলিশ তা নেয়নি।
রাজশাহী নগরের একটি রেস্তোরাঁয় আয়োজিত ওই সংবাদ সম্মেলনে সাম্প্রতিক খুনের ঘটনায় উদ্বেগ প্রকাশ করেন সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা। তিনি বলেন, খুনের ঘটনায় অপরাধী ধরতে রাজশাহীতে পুলিশ সক্রিয় নয়। তারা সক্রিয়তা দেখাতে ব্যর্থ হয়েছে। তিনি বলেন, ‘এই সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আমি নির্দেশ প্রদান করছি, এই মুহূর্ত থেকে পুলিশ সক্রিয় হোক, ত্রুটি-বিচ্যুতিহীনভাবে কাজ করুক। অন্যথায় তাদের বিরুদ্ধেও ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’
ফজলে হোসেন বলেন, ‘জনগণের প্রতিনিধি হিসেবে আমি জনগণের কাছে নিরাপত্তার প্রশ্নে দায়বদ্ধ। আমরা জনগণের নিরাপত্তা চাই। এই দায়বদ্ধতার কারণে আমি এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করেছি।’ তিনি বলেন, ‘আমি একজন জনপ্রতিনিধি। একজন সাংসদের যতটুকু মতামত থাকে, যতটুকু অধিকার থাকে, সেটুকু প্রয়োগ করতে চাই।’
সাংসদের এ অভিযোগের বিষয়ে জানতে যোগাযোগ করা হলে রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার সরদার তমিজ উদ্দিন প্রথম আলোকে বলেন, ‘এ ব্যাপারে পুলিশ কমিশনার স্যারই কথা বলবেন।’ তবে বেশ কয়েকবার যোগাযোগ করা হলে আরএমপির পুলিশ কমিশনার ফোন ধরেননি।