পাক ভূখণ্ডে মর্টার হামলা চালাল ইরান

56

যুগবার্তা ডেস্কঃ হুঁশিয়ারি আগেই ছিল। রবিবার সেই হুঁশিয়ারি মোতাবেক পাক ভূখণ্ডে মর্টার হামলা চালাল ইরান। পাক মিডিয়ার দাবি, পাক ভূখণ্ডে ব্যাপক গোলাগুলি ও মর্টার বর্ষণ করে ইরান। ছোড়া হয়েছে বোমাও। পাক ভূখণ্ডে ইরান সেনার বোমাবর্ষণের তীব্র নিন্দা করেছে পাকিস্তান। তাদের অভিযোগ, আন্তর্জাতিক আইন লঙ্ঘন করার ফল ভুগতে হবে ইরানকে। সম্প্রতি পাকিস্তানের সঙ্গে ইরানের সম্পর্ক প্রায় তলানিতে এসে ঠেকেছে। সম্প্রতি সিস্তান-বালুচিস্তান সীমান্তের মির্জাভিহে পাকিস্তানের সুন্নি জঙ্গি সংগঠন জৈশ আল-আদল অন্তত ১০ জন ইরানি সৈন্যকে হত্যা করে। ওই ঘটনার বিরুদ্ধে ইরানে অবস্থিত পাক রাষ্ট্রদূতকে সমন পাঠায় তেহরান। আসিফ দুরানিকে স্পষ্ট জানিয়ে দেওয়া হয়েছে, অবিলম্বে ওই জঙ্গিদের শাস্তি দিতে হবে। কিন্তু পাকিস্তান সেই অভিযোগে কান দেয়নি। পরিস্থিতির চূড়ান্ত অবনতি হওয়ায় ইরানের সরকারি টেলিভিশন প্রেস টিভি রাখঢাক না রেখেই জানিয়ে দেয়, ইরানীয় সেনা তাঁদের ১০ সহকর্মীর মৃত্যুকে বিফলে যেতে দেবে না। আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিশারদদের একাংশ মনে করছেন, সিস্তান-বালুচিস্তানের সীমান্তবর্তী এলাকায় ড্রাগ পাচার ও জঙ্গি হাতিয়ার আদান-প্রদানের বিরুদ্ধেই সম্ভবত অভিযান চালাল ইরান।
প্রায়শই পাক ঘাঁটি থেকে জঙ্গিরা ঢুকে পড়ে ইরান ভূখণ্ডে। চালায় অবাধে গোলাগুলি। বারবার কূটনৈতিক স্তরে এর মোকাবিলা করার চেষ্টা চালিয়েছে তেহরান। কিন্তু কাজের কাজ কিছুই হয়নি। জঙ্গিরা যথেচ্ছ আক্রমণ চালিয়ে ফের পাকিস্তানেই গা ঢাকা দেয় বলে অভিযোগ ইরানের। পাক প্রশাসনও জঙ্গিদের শায়েস্তা করতে বিন্দুমাত্র পদক্ষেপ করেনি। বারবারই ইরানে হামলার কথা অস্বীকার করে পাকিস্তান। কিন্তু পাকিস্তানের এই দ্বিমুখী নীতি আর মেনে নেবে না বলে সম্প্রতি হুঁশিয়ারি দেয় ইরান সেনা। সে দেশের সেনার পক্ষে জানানো হয়েছে, পাকিস্তান যদি জঙ্গি দমনে ব্যবস্থা নিতে না পারে, তবে পাক মুলুকে ঢুকেই জঙ্গি ডেরা ধ্বংস করবে ইরানের সেনা। ইরান সেনার পক্ষে মেজর জেনারেল মহম্মদ বাকেরি সাফ জানান, এই পরিস্থিতি মেনে নেওয়া যায় না। যদি জঙ্গি হানা চলতে থাকে, তারা যেখানে আশ্রয় নিচ্ছে সেখানে পৌঁছে আমাদেরই ঘাঁটি ধ্বংস করতে হবে। সে যেখানেই হোক না কেন! এদিনের হামলা ওই হুঁশিয়ারিকেই বাস্তব বলে প্রমাণ করল।”-সূত্র: ফেইসবুক