যুগবার্তা ডেস্কঃ ভারতের পাঞ্জাবের পাঠানকোট বিমান ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলার পেছনে পাকিস্তানের সংশ্লিষ্টতা রয়েছে জানিয়ে ৭২ ঘণ্টার মধ্যে কড়া পদক্ষেপ নিতে বলেছে ভারত। জঙ্গি হামলার সংশ্লিষ্ট নথিপত্র ও কলের রেকর্ড পাকিস্তানের হাতে তুলে দিয়ে এই আল্টিমেটাম দিয়েছে ভারত। গতকাল মঙ্গলবার ভারতীয় গণমাধ্যমের খবরে এ কথা বলা হয়েছে। এদিকে, পাঠানকোটে হামলায় জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য পাকিস্তানের প্রতি আহ্বান জানিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। যদিও পাঠানকোটে হামলার তদন্তে ভারতকে সবরকম সহযোগিতা করার আশ্বাস দিয়েছে পাকিস্তান। খবর:আনন্দবাজার, এনডিটিভি ও টাইমস অব ইন্ডিয়ার।

গত শনিবার পাঠানকোটে বিমান বাহিনীর ঘাঁটিতে হামলা চালায় জঙ্গিরা। এ হামলায় ভারতীয় সেনা কর্মকর্তাসহ সাত জন সেনা ও ছয় জঙ্গি নিহত হয়। প্রায় ৮০ ঘণ্টার অভিযান শেষে বিমান ঘাঁটি জঙ্গি মুক্ত ঘোষণা করা হয়। বিমান ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলার মাত্র এক সপ্তাহ আগে এক আকস্মিক সফরে পাকিস্তান গিয়েছিলেন ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী। আলোচনার মাধ্যমে বৈরিতা কমাতে একমতও হন দুই দেশের প্রধানমন্ত্রীরা। কিন্তু মাত্র এক সপ্তাহের মাথায় পাকিস্তানের সীমান্তের কাছে পাঠানকোটের ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলায় নতুন করে বাধার মুখে পড়েছে দুই দেশের আলোচনা। এমনকি চলতি মাসের ১৫ তারিখে ইসলামাবাদে দুই দেশের পররাষ্ট্র সচিব পর্যায়ে যে বৈঠক হওয়ার কথা ছিল তা পেছানোর ইঙ্গিত দেয়া হয়েছে ভারতের পক্ষ থেকে।

আনন্দবাজার পত্রিকার এক খবরে বলা হয়েছে, এই হামলার সঙ্গে পাকিস্তানের সংশ্লিষ্টতা দাবি করে পাকিস্তানকে দ্রুত ব্যবস্থা নিতে বলেছে ভারত। হামলাকারী জঙ্গিদের কাছ থেকে এমন অনেক কিছু উদ্ধার হয়েছে যা পাকিস্তানের সম্পৃক্ততাকে আরো স্পষ্ট করেছে। শুধু তাই নয়, জঙ্গিরা হামলা চালানোর আগে যে পাকিস্তানে ফোন করেছিল সেই কল রেকর্ডও তদন্তকারীদের হাতে এসেছে। হামলায় পাকিস্তানের সংশ্লিষ্টতাকে আরো মজবুত করতে পারে এমন সব তথ্য সোমবারই পাকিস্তানের হাতে তুলে দিয়েছে ভারত।

এদিকে যুক্তরাষ্ট্র বলেছে, তারা আশা করছে হামলার সঙ্গে জড়িতদের বিরুদ্ধে দ্রুত ব্যবস্থা নেবে পাকিস্তান। মার্কিন পররাষ্ট্র দপ্তরের মুখপাত্র জন কিরবি সোমবার বলেন, ইসলামাবাদ জানিয়েছে তারা ভারতের দেয়া তথ্য অনুযায়ী কাজ করে চলেছে। পাকিস্তান সরকার জোরের সঙ্গেই বলেছে তারা এ বিষয়ে দ্রুত পদক্ষেপ নেবে। তিনি বলেন, দক্ষিণ এশিয়ায় সন্ত্রাসের চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় এবং পাঠানকোটের দুষ্কৃতকারীদের বিচারের মুখোমুখি করতে সংশ্লিষ্ট সকল দেশকে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।

এদিকে, গতকাল মঙ্গলবার শ্রীলঙ্কা থেকে সরাসরি নরেন্দ্র মোদীকে ফোন করে কথা বলেন পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী নওয়াজ শরিফ। পাঠানকোটে জঙ্গি হামলার তদন্তে ভারতকে সব রকম সহযোগিতা করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি। তিনি এই হামলার তীব্র নিন্দা জানিয়ে বলেন, এক্ষেত্রে দ্রুত ও সুস্পষ্ট পদক্ষেপ নেবে পাকিস্তান। জঙ্গিবাদের বিরুদ্ধে লড়াইয়ে ভারতের সঙ্গে তার দেশ রয়েছে বলেও জানান তিনি। এ সময় নরেন্দ্র মোদী বলেন, পাঠানকোটে জঙ্গি হামলার সঙ্গে যুক্ত ব্যক্তি ও প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে পাকিস্তানকে দৃঢ় এবং দ্রুত পদক্ষেপ নিতে হবে। এর আগের দিন দুই দেশের নিরাপত্তা উপদেষ্টার মধ্যে এ বিষয়ে আলোচনা হয়। সে সময় ভারতের পক্ষ থেকে কিছু তথ্য দেয়া হয়।

এদিকে, ভারতের প্রতিরক্ষামন্ত্রী মনোহর পরিকর স্বীকার করেছেন, কিছু ফাঁক থাকার কারণে বিমান ঘাঁটিতে জঙ্গি হামলা হয়েছে। পাকিস্তানের সংশ্লিষ্টতা বিষয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, জঙ্গিদের ব্যবহূত কিছু অস্ত্র পাকিস্তানে তৈরি। তবে বিস্তারিত তিনি কিছু জানাননি।ইত্তেফাক