পদদলিত হয়ে নিহত হাজীদের মধ্যে ১০ বাংলাদেশীর পরিচয় পাওয়া গেছে

116

যুগবার্তা ডেস্কঃ সৌদি আরবের মিনায় গত বৃহস্পতিবার হজের শেষ পর্যায়ের আনুষ্ঠানিকতা পালনের সময় পদদলিত হয়ে মৃত্যুদের মধ্যে ১০ বাংলাদেশি হাজি বলে বিভিন্ন হজ এজেন্সি ও হাজিদের আত্মীয়-স্বজন সূত্রে জানা গেছে।
নিহত হাজিরা হলেন- জামালপুর জেলার ফিরোজা বেগম, সুনামগঞ্জ জেলার জুলিয়া হুদা, ফেনী জেলার তাহেরা বেগম ও তার ভাই নূর নবী মিন্টু, মুন্সীগঞ্জ জেলার জাহানারা আরজু, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার গোলাম মোস্তফা, শরিয়তপুর জেলার এম এ রাজ্জাক, হাসিনা আক্তার, আহম্মেদ আলী মৃধা ও দিনাজপুর জেলার কেরামত আলি।
এ বিষয়ে জানতে চাওয়া হলে জেদ্দায় বাংলাদেশ দূতাবাস থেকে জানান, সৌদি কর্তৃপক্ষ নিহত ৬০০ জনের তালিকা প্রকাশ করেছে। সেখানে দুইজন বাংলাদেশী হাজির নাম আছে। তবে তাদের সম্পর্কে বিস্তারিত এখনও কিছু আমরা জানতে পারিনি।
এদিকে ওই দিনের পদদলনের ঘটনায় ৯৮ জন বাংলাদেশী হাজি নিখোঁজ রয়েছেন বলে জানান বাংলাদেশ দূতাবাসের হজ কাউন্সিলর আসাদুজ্জামান। তিনি জানান, বিভিন্ন হজ এজেন্সি সূত্রে নিখোঁজ ১২৮ জনের তালিকা আমরা পেয়েছিলাম। পরে তাদের মধ্য থেকে ৩০ জনের সন্ধান পাওয়া যায়। শয়তানকে পাথর নিক্ষেপের সময় তারা দলছুট হয়ে যায়।
এদিকে বৃহস্পতিবারের ওই পদদলনের ঘটনায় মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ৭৬৯। আহত হয়েছেন ৯৩৪ জন। শনিবার সন্ধ্যায় সৌদি আরবের স্বাস্থ্যমন্ত্রী এ তথ্য জানান।
নিখোজ হাজীদের খোজ না পাওয়ায় বাংলাদেশে পরিবারগুলো উৎকন্ঠায় রয়েছে। তাদের মত করে বিভিন্ন জায়গায় ছোটাছুটি করছেন। কিন্তু সঠিক তথ্য না পাওয়ায় ক্ষোভের সৃষ্টি হচ্ছে।