নয় দফা দাবি উত্তরবঙ্গ আখচাষি সমিতির

Exif_JPEG_420

রাজশাহী অফিসঃ নয় দফা দাবি বাস্তবায়নের লক্ষে রাজশাহীতে সংবাদ সম্মেলন করেছে উত্তরবঙ্গ আখচাষি সমিতি। সোমবার দুপুরে রাজশাহীর সাহেববাজার জিরোপয়েন্টে বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির কার্যালয়ে এই সংবাদ সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়।
সংবাদ সম্মেলনে নয় দফা দাবি তুলে ধরেন উত্তরবঙ্গ চিনিকলের আখ চাষি সমিতির উপদেষ্টা অধ্যাপক বাবু সুকুমার সরকার। দাবি গুলো হলো, আখের দাম বৃদ্ধি, সুগার মিলের গেটে আখ ক্রয় কেন্দ্র ও ওজন যন্ত্র স্থাপন, পুর্জি বিতরণে অনিয়ম ঠেকাতে কমিটি গঠন, সার মিলের গুদাম থেকে চিনি মিলের গুদামে সরাসরি সার প্রদান, চাষিদেরও চিনি প্রদান, আখের ঘাটতি মূল্য ১ টাকা থেকে বৃদ্ধি করে ৫ টাকা নির্ধারণ, বিনা খরচে চাষিদের আখ খালাসের ব্যবস্থা, চাষিদের ব্যাংক হিসাব খুলে দেয়া এবং আখ মাড়াই অধ্যাদেশ প্রণয়ন।
সংবাদ সম্মেলনে তিনি বলেন, বাংলাদেশ চিনিশিল্প করপোরেশনের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারম্যান একেএম দেলোয়ার হোসেন জোর করে নানা সমস্যা চাষিদের ওপর চাপিয়ে দিচ্ছেন। এতে আখ চাষি ও চিনি শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে। অথচ বর্তমান সরকার কৃষক, কৃষি ও শিল্পবান্ধব সরকার। শুধু একেএম দেলোয়ার হোসেনের একক সিদ্ধান্তের কারণে এই শিল্প ক্ষতিগ্রস্ত হচ্ছে।
এ সময় অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন, ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক ফজলে হোসেন বাদশা এমপি, জাতীয় কৃষক সমিতির কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আমিনুল ইসলাম গোলাপ, রাজশাহী সুগার মিলের আখ চাষি সমিতির সভাপতি রফিকুল ইসলাম পিয়ারুল, উত্তরবঙ্গ চিনিকল আখ চাষি সমিতির সভাপতি অধ্যক্ষ ইব্রাহিম খলিল, নাটোর সুগার মিল আখ চাষি সমিতির সভাপতি আবদুল করিম প্রমুখ।
সংবাদ সম্মেলনে সাংসদ ফজলে হোসেন বাদশা বলেন, ‘চিনি শিল্প ধ্বংস করার কাজে যারা লিপ্ত তাদেরকে চিহ্নিত করে বিচার করতে হবে। আমি আশা করি সরকার এ ব্যাপারে কার্যকর ব্যবস্থা নেবে।’