নির্দিষ্ট সমেয়র আগেই ডিজিটাল বাংলাদেশ হবে-খালেক এমপি

মোংলা থেকে মোঃ নূর আলমঃ নির্দিষ্ট সময়ের আগেই ডিজিটাল বাংলাদেশ হবে। ছাত্র-ছাত্রীদেও উপযুক্ত শিক্ষায় শিক্ষিত করতে হবে। মোংলা-ঘষিয়াখালী চ্যানেল সংযোগ ৮৩টি খাল দ্রুতই কাটা হবে। প্রধানমন্ত্রী ঘোষিত পানি উন্নয়ন বোর্ড অর্থ বরাদ্দ প্ওায়ার সাথে সাথেই খাল গুলি কাটা হবে। চ্যানেলের দুই পাশে কেউ চিংড়ি ঘের করতে পারবে না। এই অর্থ বছরেই এই খালগুলি কাটা হবে। বর্ষার মৌসুম আসার আগেই খাল কাটার কাজ শেষ করবো। শনিবার সকালে মোংলা সরকারি কলেজে জঙ্গী বিরোধী সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় তালুকদার আব্দুল খালেক এমপি এ কথা বলেন।
শনিবার সকাল ১০টায় কলেজ ক্যাম্পাস চত্বরে জঙ্গিবাদ বিরোধী সমাবেশ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানে সভাপতিত্ব করেন বাগেরহাট-৩ এর সাবেক এমপি বেগম হাবিবুন নাহার। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব ড. নমিতা হালদার, যশোর বোর্ডের পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক মাধব চন্দ্র রুদ্র, উপজেলা চেয়ারম্যান আবু তাহের হ্ওালাদার, উপজেলা নির্বাহি অফিসার মোঃ আবু সুফিয়ান, জেলা শিক্ষা অফিসার জাকিরুল হক ও কৃষিবিদ ফ্রান্সিস হালদার। এছাড়া বক্তব্য রাখেন অবসরপ্রাপ্ত উপাধ্যক্ষ বিভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, এ্যাডঃ আব্দুস সালাম প্রমূখ। স্বাগত বক্তব্য রাখেন কলেজের অধ্যক্ষ মোঃ গোলাম সরোয়ার। বিশেষ অতিথির বক্তৃতায় প্রধানমন্ত্রীর একান্ত সচিব ড. নমিতা হালদার বলেন শিক্ষা হচ্ছে শ্রেষ্ঠ বিনিয়োগ। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান শ্রেষ্ঠ বিনিয়োগ কেন্দ্র। এই শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে যখন জঙ্গিবাদ ঢুকে পড়ে তখন তার দায়-দায়িত্ব কর্তৃপক্ষ’র উপর পড়ে যায়। প্রতিটি ছাত্র-ছাত্রী যদি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান থেকে আলোকিত হতো তাহলে আমরা জঙ্গিবাদ দেখতে পেতাম না। অনুষ্ঠানে কলেজ থেকে সদ্য অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক-কর্মচারি এবং কৃতি ছাত্র-ছাত্রীদেও সংবর্ধনা প্রদান করা হয়। অবসরপ্রাপ্ত ৫জন শিক্ষক হচ্ছেন সাবেক ভাপরপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ গাজী তৈয়াবুর রহমান, উপাধ্যক্ষ বিভাষ চন্দ্র বিশ্বাস, মৃনাল কান্তি শিকদার, বিপ্লব মিস্ত্রি ও নলিনী রঞ্জন দাস। সমগ্র অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন প্রভাষক প্রদীপ অধিকারী, প্রভাষক মাহবুবুর রহমান , প্রভাষক মমতাজ খানম ও প্রভাষক মনোজ কান্তি বিশ্বাস।