দ. কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্রের যৌথ ক্ষেপণাস্ত্র মহড়া, যুদ্ধের হুমকি

যুগবার্তা ডেস্কঃ উত্তর কোরিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা অঙ্গরাজ্যে আঘাত হানতে সক্ষম আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর যৌথ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা পরিচালনা করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া। এই দুই মিত্র দেশ জানিয়েছে একমাত্র তাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ যুদ্ধ থেকে বিরত রাখছে।

শুধু তাই নয়, তারা এটাও জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া এর ভিন্ন কিছু ভাবলে মারাত্মক ভুল করবে। এদিকে চীন ও রাশিয়া উত্তর কোরিয়াকে তাদের পারমাণবিক অস্ত্র প্রকল্প থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছে, এর বদলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ান সামরিক মহড়া বন্ধ হবে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও উ. কোরিয়া ধারাবাহিকভাবে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করে চলেছে। বুধবার জাতিসংঘে এই ইস্যু আলোচনায় জরুরি বৈঠক আহ্বান করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার ১৫ সদস্যের কাউন্সিলের রুদ্ধদ্বার বৈঠক অনুষ্ঠিত হবে।

উত্তর কোরিয়া মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আলাস্কা অঙ্গরাজ্যে আঘাত হানতে সক্ষম আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষার পর যৌথ ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা পরিচালনা করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়া। এই দুই মিত্র দেশ জানিয়েছে একমাত্র তাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ যুদ্ধ থেকে বিরত রাখছে। শুধু তাই নয়, তারা এটাও জানিয়েছে উত্তর কোরিয়া এর ভিন্ন কিছু ভাবলে মারাত্মক ভুল করবে। এদিকে চীন ও রাশিয়া উত্তর কোরিয়াকে তাদের পারমাণবিক অস্ত্র প্রকল্প থেকে বিরত থাকার আহ্বান জানিয়েছে, এর বদলে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ও দক্ষিণ কোরিয়ান সামরিক মহড়া বন্ধ হবে। জাতিসংঘের নিরাপত্তা কাউন্সিলের নিষেধাজ্ঞার মধ্যেও উ. কোরিয়া ধারাবাহিকভাবে দূরপাল্লার ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করে চলেছে। বুধবার জাতিসংঘে এই ইস্যু আলোচনায় জরুরি বৈঠক আহ্বান করেছে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র। বুধবার ১৫ সদস্যের কাউন্সিলের রুদ্ধদ্বার বৈঠক অনুষ্ঠিত হয়।

মঙ্গলবার উ. কোরিয়া দাবি করে তারা প্রথমবার সফলভাবে আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে। ১৯৫০-৫৩ পর্যন্ত চলা দুই কোরিয়ার যুদ্ধ অস্ত্রবিরতির মাধ্যমে থামে, কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে এর সমাপ্তি টানা হয়নি। সেই বিষয়টির দিকে ইঙ্গিত করে বুধবার দক্ষিণ কোরিয়ায় নিয়োজিত মার্কিন সেনাবাহিনীর কমান্ডার জেনারেল ভিনসেন্ট কে. ব্রুক্স বলেন, আমাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ যা কি না আমাদের একটি বিকল্প পছন্দ, যুদ্ধ ও অস্ত্রবিরতির মধ্যে দাঁড়িয়ে আছে। আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়ার মধ্যে দিয়ে আমরা এটা প্রদর্শন করেছি যে আমাদের জোটের জাতীয় নেতাদের নির্দেশ অনুযায়ী আমরা আমাদের অন্য বিকল্পটি বেছে নিতে সবসময় প্রস্তুত আছি। উ. কোরিয়া এর বিপরীত কিছু ভাবলে মারাত্মক ভুল করবে।

দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে মিত্র বাহিনীর যৌথ মহড়ায় অনুমোদন দিতে ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানান। মঙ্গলবার তিনি বলেন, উ. কোরিয়ার উসকানির জবাবটা বিবৃতির চেয়ে বেশি কিছু দিয়ে দেয়া প্রয়োজন। দ. কোরিয়ার সেনাবাহিনী জানিয়েছে, বুধবার পরীক্ষা করা ক্ষেপণাস্ত্রটি ১৮৫ মাইল দূরে আঘাত হানতে সক্ষম। বিবৃতিতে বলা হয়, যুদ্ধ শুরু হলে এই ক্ষেপণাস্ত্র শত্রু নেতৃত্বের উপর নিখুঁতভাবে হামলা করতে সক্ষম হবে।
মঙ্গলবার উ. কোরিয়া দাবি করে তারা প্রথমবার সফলভাবে আন্তঃমহাদেশীয় ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষা করেছে। ১৯৫০-৫৩ পর্যন্ত চলা দুই কোরিয়ার যুদ্ধ অস্ত্রবিরতির মাধ্যমে থামে, কিন্তু আনুষ্ঠানিকভাবে এর সমাপ্তি টানা হয়নি। সেই বিষয়টির দিকে ইঙ্গিত করে বুধবার দক্ষিণ কোরিয়ায় নিয়োজিত মার্কিন সেনাবাহিনীর কমান্ডার জেনারেল ভিনসেন্ট কে. ব্রুক্স বলেন, আমাদের আত্মনিয়ন্ত্রণ যা কি না আমাদের একটি বিকল্প পছন্দ, যুদ্ধ ও অস্ত্রবিরতির মধ্যে দাঁড়িয়ে আছে। আমাদের ক্ষেপণাস্ত্র মহড়ার মধ্যে দিয়ে আমরা এটা প্রদর্শন করেছি যে আমাদের জোটের জাতীয় নেতাদের নির্দেশ অনুযায়ী আমরা আমাদের অন্য বিকল্পটি বেছে নিতে সবসময় প্রস্তুত আছি। উ. কোরিয়া এর বিপরীত কিছু ভাবলে মারাত্মক ভুল করবে। দ. কোরিয়ার প্রেসিডেন্ট মুন জায়ে মিত্র বাহিনীর যৌথ মহড়ায় অনুমোদন দিতে ট্রাম্পের প্রতি আহ্বান জানান। মঙ্গলবার তিনি বলেন, উ. কোরিয়ার উসকানির জবাবটা বিবৃতির চেয়ে বেশি কিছু দিয়ে দেয়া প্রয়োজন। দ. কোরিয়ার সেনাবাহিনী জানিয়েছে, বুধবার পরীক্ষা করা ক্ষেপণাস্ত্রটি ১৮৫ মাইল দূরে আঘাত হানতে সক্ষম। বিবৃতিতে বলা হয়, যুদ্ধ শুরু হলে এই ক্ষেপণাস্ত্র শত্রু নেতৃত্বের উপর নিখুঁতভাবে হামলা করতে সক্ষম হবে।

এদিকে বুধবার উ. কোরিয়া ও দ. কোরিয়ার মধ্যে পাল্টাপাল্টি প্রচারণা চলছে। উ. কোরিয়ার নেতা কিম জং উন বলেন, ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাটি আমেরিকান জারজদের মুখে একটি সজোরে থাপ্পড়। এবং মার্কিন স্বাধীনতা দিবসে এটি তাদের জন্য ‘গিফট প্যাকেজ’। দ. কোরিয়া একটি অ্যানিমেটেড ভিডিও প্রচার করছে। ভিডিওতে দেখা যায়, মার্কিন বি১বি বোমারু বিমান জার্মানিতে নির্মিত টাউরুস ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে উ. কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে আঘাত হানছে। টাউরুস ক্ষেপণাস্ত্র ভূগর্ভে থাকা লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম, এবং দ. কোরিয়া বরাবরের মতোই উ. কোরিয়া ধ্বংসে এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহৃত হবে বলে প্রচারণায় বলে আসছে। বিবিসি, সিএনএন ও নিউইয়র্ক টাইমস।

এদিকে বুধবার উ. কোরিয়া ও দ. কোরিয়ার মধ্যে পাল্টাপাল্টি প্রচারণা চলছে। উ. কোরিয়ার নেতা কিম জং উন বলেন, ক্ষেপণাস্ত্র পরীক্ষাটি আমেরিকান জারজদের মুখে একটি সজোরে থাপ্পড়। এবং মার্কিন স্বাধীনতা দিবসে এটি তাদের জন্য ‘গিফট প্যাকেজ’। দ. কোরিয়া একটি অ্যানিমেটেড ভিডিও প্রচার করছে। ভিডিওতে দেখা যায়, মার্কিন বি১বি বোমারু বিমান জার্মানিতে নির্মিত টাউরুস ক্ষেপণাস্ত্র দিয়ে উ. কোরিয়ার রাজধানী পিয়ংইয়ংয়ে আঘাত হানছে। টাউরুস ক্ষেপণাস্ত্র ভূগর্ভে থাকা লক্ষ্যে আঘাত হানতে সক্ষম, এবং দ. কোরিয়া বরাবরের মতোই উ. কোরিয়া ধ্বংসে এ ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবহৃত হবে বলে প্রচারণায় বলে আসছে। বিবিসি, সিএনএন ও নিউইয়র্ক টাইমস। -ইত্তেফাক