Home জাতীয় দৌলতপুরে লকডাউন কার্যকর করতে প্রশাসন তৎপর

দৌলতপুরে লকডাউন কার্যকর করতে প্রশাসন তৎপর

32

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে লকডাউন চলকালে করোনা স্বাস্থ্যবিধি না মানার অপরাধে ৭ জনের ৮ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। এছাড়াও লকডাউন না মেয়ে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করায় কনের মা’র ১৫হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। গতকাল মঙ্গলবার দুপুর ২টার সময় উপজেলার পার্শ্ববর্তী মানিকদিয়াড় গ্রামে জান্নাতী খাতুন নামে এক নারী তার মেয়ের বিয়ে উপলক্ষে অনুষ্ঠানের আয়োজন করলে দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত অভিযান চালিয়ে জান্নাতী খাতুনের ১৫হাজার টাকা জরিমানা সহ বিয়ের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেন।
অপরদিকে সোমবার সন্ধ্যা থেকে রাত সাড়ে ৮টা পর্যন্ত দৌলতপুর উপজেলার তারাগুনিয়া থানারমোড়, কল্যানপুর বাজার, জয়রামপুর বাজার, আল্লারদর্গা ও দৌলতপুর থানা বাজারে পৃথক অভিযান চালিয়ে করোনা স্বাস্থ্যবিধি না মানার অপরাধে ৭ জনের ৮ হাজার টাকা অর্থদন্ড করেন ভ্রাম্যমান আদালতের নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট শারমিন আক্তার। এদিকে লকডাউনের দ্বিতীয় দিনও গতকাল মঙ্গলবার দিনভর দৌলতপুর উপজেলা প্রশাসন ব্যাপক তৎপরতা চালিয়েছে। দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তারের নেতৃত্বে উপজেলা প্রশাসনের বিভিন্ন দপ্তরের কর্মকর্তা ও দৌলতপুর থানা পুলিশ দৌলতপুরের বিভিন্ন বাজার ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে অভিযান চালিয়ে জনসচেতনতা কার্যক্রম চালানোর পাশাপাশি লকডাউন বিধি নিষেধ মেনে চলার আহ্বান জানিয়েছেন।
ভ্রাম্যমান আদালত সূত্র জানায়, মুখে মাস্ক ব্যবহার না করে করোনা স্বাস্থ্য বিধি না মানার দায়ে ১৮৬০ সালের দ: বি: ২৬৯ ধারায় সংক্রমক রোগ (প্রতিরোধ, নিয়ন্ত্রন ও নির্মূল) আইন-২০১৮ এর ৭টি মামলায় ৭ জনের ৮ হাজার অর্থদন্ড সহ সরকারী আদেশ অমান্য করে বিয়ের অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হলে কনের পক্ষের ১৫হাজর জরিমানা করেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার। এসময় বিয়ের অনুষ্ঠান বন্ধ করে দেওয়া হয়।
ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক দৌলতপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার শারমিন আক্তার বলেন, করোনা স্বাস্থ্য বিধি না মেনে মুখে মাস্ক ব্যবহার না করার অপরাধে ৭ জনের অর্থদন্ড সহ বিয়ে বাড়ির কনে পক্ষের ১৫হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। বন্ধ করা হয়েছে বিয়ের অনুষ্ঠান। করোনা সংক্রমন রোধে ও লকডাউন কার্যকর করতে ভ্রাম্যমান আদালতের এ অভিযান চলামান থাকবে বলে তিনি উল্লেখ করেন।