দৌলতপুরে ভুয়া ডাক্তারের ৩ মাসের কারাদন্ড : দু’টি ক্লিনিক সিলগালা

দৌলতপুর (কুষ্টিয়া) প্রতিনিধি : কুষ্টিয়ার দৌলতপুরে এস এম রবিউল ইসলাম নামে এক ভুয়া ডাক্তারের ৩ মাসের কারাদন্ড দিয়েছেন ভ্রাম্যমান আদালত। রোববার দুপুর সোয়া ১টার দিকে উপজেলার প্রাগপুর ইউনিয়নের গুড়ারপাড়া বাজারে অভিযান চালিয়ে বৈধ কাগজপত্র ও ডাক্তারী সনদ দেখাতে না পারার অভিযোগে ওই ডাক্তারের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আফরোজ শাহীন খসরু।
ভ্রাম্যমান আদালত সূত্র জানায়, ভুয়া ডাক্তার এস এম রবিউল ইসলাম সাইনবোর্ড ঝুলিয়ে চিকিৎসার নামে রোগীদের সাথে প্রতারণা ও ভুয়া চিকিৎসা দিয়ে আসছিল। এমন খবরে দৌলতপুর সহকারী কমিশনার (ভূমি) আফরোজ শাহীন খসরুর নেতৃত্বে ভ্রাম্যমান আদালত গুড়ারপাড়া বাজারে ওই ডাক্তারের কার্যালয়ে আকষ্মিক অভিযান চালিয়ে বৈধ কাগজপত্র ও ডাক্তারী সনদ দেখতে চান। এসময় ভুয়া ডাক্তার এস এম রবিউল ইসলাম বৈধ কাগজপত্র ও ডাক্তারী সনদ দেখাতে ব্যর্থ হলে ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ আইন ২০০৯ এর ৪৪ ও ৫২ ধারায় তাকে ৩ মাসের বিনাশ্রম কারাদন্ড দেন ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আফরোজ শাহীন খসরু। এসময় দৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদুল হাসান তুহিন উপস্থিত ছিলেন। ভ্রাম্যমান আদালতের বিচারক ও নির্বাহী ম্যাজিষ্ট্রেট আফরোজ শাহীন খসরু জানান, জনস্বার্থে এধরনের অভিযান অব্যাহত থাকবে।
এছাড়াও বৈধ কাগজপত্র না থাকায় উপজেলার হোসেনাবাদ সুপারসনো হাসপাতাল ও মহিষকুন্ডি আল মদিনা ডায়াগনষ্টিক সেন্টার সিলগালা করে দেদৌলতপুর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. তৌহিদুল হাসান তুহিন।