দুই দিনের রিমান্ডে ‘আনসার রাজশাহী’র দুই জঙ্গি

????????????????????????????????????

রাজশাহী অফিসঃ জঙ্গিদের ‘আঁতুড় ঘর’ বাগমারায় জন্ম নেওয়া নতুন জঙ্গি সংগঠন ‘আনসার রাজশাহী’র দুই সদস্য আমিনুল ইসলাম ওরফে রুমি (২৩) ও এনামুল হক ওরফে সবুজের (২২) দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। রোববার দুপুরে রাজশাহীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৪ এর বিচারক একরামুল করিম তাদের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

এর আগে গত ১৬ আগস্ট রাতে এই দুই জঙ্গিকে রাজশাহীর বাগমারা থেকে গ্রেফতার করে জেলা গোয়েন্দা (ডিবি) পুলিশের একটি দল। ওই দিন সন্ধ্যায় তাদের আদালতের মাধ্যমে জেলহাজতে পাঠানো হয়। পরে ১৭ আগস্ট তাদের প্রত্যেকের সাত দিন করে রিমান্ডের আবেদন করেন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা জেলা ডিবি পুলিশের উপপরিদর্শক (এসআই) রুহুল আমিন। আদালত শুনানির জন্য রোববার দিন ঠিক করে রেখেছিলেন।

তদন্ত কর্মকর্তা জানান, রোববার দুপুরে রিমান্ড আবেদনের শুনানি হলে আদালত আসামিদের দুই দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন। রোববার বিকেলেই আসামিদের কারাগার থেকে এনে জিজ্ঞাসাবাদ শুরু করা হবে।

তিনি বলেন, ‘এই জঙ্গি সংগঠন সম্পর্কে উল্লেখ করার মতো আর বেশি কিছু তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে গ্রেফতার আসামিদের রিমান্ডে এনে জিজ্ঞাসাবাদ করলে গুরুত্বপূর্ণ তথ্য পাওয়া যাবে বলে আমরা মনে করছি।’

জানা গেছে, রুমি ও সবুজ সম্পর্কে দুই খালাতো ভাই। তাদের বাড়ি বাগমারার শ্রীপুর খামারপাড়া গ্রামে। রুমির বাবার নাম সাইফুল ইসলাম ওরফে টিপু। আর সবুজের বাবার নাম আবদুর রাজ্জাক। রুমি আবার রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়ের ইংরেজি বিভাগের অধ্যাপক ড. এএফএম রেজাউল করিম সিদ্দিকী হত্যাকা-ে জড়িত জেএমবি সদস্য শরিফুল ইসলামের আপন মামাতো ভাই। রাবির ইংরেজি বিভাগেরই শিক্ষার্থী শরিফুল ১৫ মাস ধরে ‘নিখোঁজ’। তাকে ধরিয়ে দিতে সম্প্রতি রাজশাহী মহানগর পুলিশের (আরএমপি) পক্ষ থেকে এক লাখ টাকা পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।

রুমি ও সবুজকে গ্রেফতারের পর ওই দিন সন্ধ্যায় এক সংবাদ সম্মেলনে রাজশাহীর পুলিশ সুপার (এসপি) মোয়াজ্জেম হোসেন জানান, শরিফুল পলাতক অব¯’ায় থেকেই ‘আনসার রাজশাহী’ নামে নতুন এই জঙ্গি সংগঠন খুলেছে। বাংলাদেশকে ইসলামী শরিয়াহভিত্তিক রাষ্ট্রে পরিণত করার মিশন তারা তাদের কার্যক্রম শুরু করেছে। দেশের বিভিন্ন ¯’ানের মুক্তমনা মানুষ ও হিন্দু ধর্মালম্বী চিকিৎসকদের হত্যার মিশনও আছে তাদের। এরই মধ্যে তারা বাগমারার হিন্দুপাড়া এলাকার নীরেন্দ্রনাথ সরকার (৫৮) নামে এক হোমিও চিকিৎসককে হত্যার পরিকল্পনা করেছিল। তবে রুমি ও সবুজকে গ্রেফতারের মধ্য দিয়ে তাদের এই পরিকল্পনা ভেস্তে যায়।

এসপি জানিয়েছিলেন, রাজশাহী ও পাবনাসহ উত্তরাঞ্চলের বিভিন্ন এলাকার বিপথগামী কিছু যুবক এই জঙ্গি সংগঠনটি গড়ে তুলেছে। এদের মধ্যে আরও চারজনের নাম জানা গেছে। সংগঠনটির নেতৃত্বে আছে রাজশাহী মহানগরীর বোয়ালিয়া থানা এলাকার আবু ইব্রাহীম ওরফে তারেক ওরফে রিপন (২৪) নামে আরেক যুবক। তার সম্পর্কে বিস্তারিত আর কোনো তথ্য পাওয়া যায়নি। তবে সংগঠনটির সবাইকে গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।