তে-ভাগা আন্দোলনের পথ ধরে আমাদের এগিয়ে যেতে হবে-সেলিম

যুগবার্তা ডেস্কঃ ঐতিহাসিক তে-ভাগা শহীদ দিবস উপলক্ষ্যে আয়োজিত আলোচনা সভায় বাংলাদেশের কমিউনিস্ট পার্টি সিপিবি’র সভাপতি কমরেড মুজাহিদুল ইসলাম সেলিম বলেছেন, তে-ভাগা আন্দোলনের পথ ধরে বর্তমান সময়ে গ্রামাঞ্চলে কৃষক-ক্ষেতমজুরদের মিলিত আন্দোলন গড়ে তুলতে হবে। তিনি বলেন, ১৯৪৭ সালের ৪ জানুয়ারি দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে ক্ষেতমজুর সমিরউদ্দিন শেখ এবং কৃষক শিবরাম মাঝি তে-ভাগা আন্দোলন করতে গিয়ে শহীদ হন। পরবর্তীতে এই আন্দোলনের ধারাবাহিকতায় এদেশে অসংখ্য আন্দোলন গড়ে উঠেছে। কৃষক ফসলের তিন ভাগের দুই ভাগ পাবে এই দাবিতে গড়ে ওঠা আন্দোলন আজও সফল হয়নি। তিনি এই আন্দোলনকে চ‚ড়ান্ত সফলতায় নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে তীব্র লড়াই গড়ে তোলার জন্য সকলের প্রতি আহ্বান জানান।
বুধবার বিকেলে মুক্তিভবনের মৈত্রী মিলনায়তনে বাংলাদেশ কৃষক সমিতি এবং বাংলাদেশ ক্ষেতমজুর সমিতি যৌথ উদ্যোগে আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন ক্ষেতমজুর সমিতির সভাপতি অ্যাড. সোহেল আহমেদ। আলোচনা করেন কৃষক সমিতির সাধারণ সম্পাদক কাজী সাজ্জাদ জহির চন্দন, ক্ষেতমজুর সমিতির সাধারণ সম্পাদক আনোয়ার হোসেন রেজা। উপস্থিত ছিলেন কৃষক সমিতির সভাপতি মোর্শেদ আলী, কৃষকনেতা কমরেড শাহ আলম, অ্যাড আব্দুস সবুর, শামসুজ্জামান হীরা প্রমুখ । লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন মানবেন্দ্র দেব এবং কবিতা আবৃত্তি করেন সুব্রত ভট্টাচার্য। সভা পরিচালনা করেন কৃষকনেতা জাহিদ হোসেন খান।
সভায় নেতৃবৃন্দ বলেন, বর্তমানে গ্রামাঞ্চলে কৃষক-ক্ষেতমজুরদের আন্দোলনের দুর্বলতার সুযোগে সাম্প্রদায়িক শক্তি গ্রামে ঘাটি গেড়ে বসেছে। হিন্দু-মুসলমানদের মধ্যে বারবার দাঙ্গা বাধানোর চেষ্টা হয়েছে। নেতৃবৃন্দ সাম্প্রদায়িক অপশক্তির বিরুদ্ধে গ্রামাঞ্চলে প্রতিরোধ গড়ে তোলার আহ্বান জানান। সভা থেকে তে-ভাগা শহীদ দিবস দেশব্যাপী যথাযোগ্য মর্যাদায় পালনের জন্য আহ্বান জানানো হয়।
সভার শুরুতে তে-ভাগা আন্দোলনে সকল শহীদদের স্মরণে দাঁড়িয়ে এক মিনিট নীরবতা পালন করা হয়।