তিথির অপেক্ষায় তিথি

81

যুগবার্তা ডেস্কঃ নৃত্য, উপস্থাপনা, নাটকে অভিনয়, মডেলিং—সবই করেছেন। প্রতিটি ক্ষেত্রে সফল হয়েছেন কবির তিথি। ছোট পর্দার এই অভিনেত্রী অপেক্ষায় আছেন রুপালি পর্দায় যাত্রা শুরুর। কয়েকদিন আগে উত্তরার দিয়াবাড়ীতে তুলেছেন এই ছবি।
বড় পর্দায় আসার বার্তা আগেই দিয়েছিলেন কবির তিথি। তবে এর জন্য চেয়েছিলেন আরো কিছু দিন সময়। সেই সময় ফুরনোর আগেই সাইন করে ফেললেন ইস্পাহানি আরিফ জাহানের নতুন চলচ্চিত্র মিশন মাদ্রিদে। এ প্রসঙ্গে তিথি বলেন, ‘মিশন মাদ্রিদের সাথে সম্পৃক্ত হয়েছি হুট করেই। অনেক আগে থেকেই চলচ্চিত্রের প্রস্তাব পাচ্ছিলাম। সাড়া না দিয়ে সবার কাছে আরো কিছু দিন সময় চেয়েছিলাম। কারণ চলচ্চিত্র অনেক বড় মাধ্যম এখানে অভিনয়ে পরিপক্বতা ছাড়া এগোনো যায় না।’ তিনি বলেন,‘মিশন মাদ্রিদের গল্প চমৎকার। প্রযোজনা সংস্থা থেকে পাঠানো স্ক্রিপ্টটা পড়ে অভিনয়ের লোভ সামলাতে পারিনি। এই ছবিতে দর্শক নতুন একটি গল্প পাবেন।’
ছবির ৮০ শতাংশ শুটিং হবে স্পেনের রাজধানী মাদ্রিদে। ঈদের কয়েক দিন পর সেখানে যাওয়ার প্রস্তুতি চলছে বলে জানিয়েছেন তিথি। এ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘পাসপোর্ট জমা হয়ে গেছে ভিসাও প্রস্তুত। মাদ্রিদের একটি রিসোর্টে আমাদের শুটিং চলবে ১৫ দিন। যেহেতু আমার প্রথম ছবি তাই ভয়টা একটু বেশি। তবে সবার দোয়া থাকলে ভালো একটি ছবি উপহার দিতে পারব বলে আমার বিশ্বাস।’ ছবিতে আরো অভিনয় করবেন বাপ্পী চৌধুরী, বিপাশা, আমান খান প্রমুখ। ছবির গল্প প্রসঙ্গে তিথি বলেন, ‘আমি একজন পুলিশ অফিসার। আর বাপ্পী মোষ্টওয়ান্টেড স্মাগলার। তাকে ধরার জন্য ছদ্মবেশে আমি মাদ্রিদে যাই। আমার সহযোগী হিসেবে থাকেন আমান খান। একপর্যায়ে আমান আমার সাথে ভাব করতে চায়, ওদিকে বাপ্পীও আমার প্রতি দুর্বল হতে থাকে। এখানেই গল্পের টুইস্ট। তিথির শোবিজ শুরু কিন্তু পিকুলিয়ার। ব্যাংকার হওয়ার পরিকল্পনা নিয়ে কলকাতার বিবেকানন্দ পৈলান ওয়ার্ল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজে বিবিএ পড়তে গিয়েছিলেন। ছয় মাস না যেতেই পরিকল্পনায় ছেদ পড়ে। বিষয় পরিবর্তন করে তিনি মিডিয়া অ্যান্ড কমিউনিকেশনে অনার্স-মাস্টার্স সম্পন্ন করেন। একই সময়ে শান্তিনিকেতন থেকে নৃত্যের (ভারত নাট্যম) ওপর সাড়ে পাঁচ বছর মেয়াদি একটি কোর্সও সম্পন্ন করেন। ২০১৩ সালের শুরুর দিকে দেশে ফিরে নৃত্য নিয়েই ব্যতিক্রমী কিছু করার চিন্তা নিয়ে এগোচ্ছিলেন। ওই বছরই মে মাসে নাচ করতে গিয়েই পরিচয় হয় পরিচালক শাহজাদা মামুনের সাথে। এর কিছু দিনের মধ্যেই শাহজাদা মামুন অন্যপক্ষ নামের একটি নাটকে কাজ করার প্রস্তাব দিলে রাজি হয়ে যান তিথি। এই নাটকের শুটিং চলাকালেই পরিচালক আশরাফী মিঠু কবিগুরু রবীন্দ্রনাথের গল্প অবলম্বনেঘরে বাইরে নাটেক অভিনয়ের প্রস্তাব দেন। নাটক দু’টিতে কাজ করে অভিনয়ের প্রতি একটি মোহ তৈরি হয় তিথির। বর্তমানে ব্যস্ত সময় পার করছেন ঈদের নাটক ও উপস্থাপনা নিয়ে। পাশাপাশি নাচও করছেন বিভিন্ন টিভি অনুষ্ঠানে।