জার্মান ট্রেনে হামলাকারীর ঘরে আইএসের পতাকা

38

যুগবার্তা ডেস্কঃ জার্মানির একটি লোকাল ট্রেনে হামলার ঘটনা ঘটল । ১৭ বছর বয়সের এক আফগান কিশোর ট্রেনে উঠে আচমকা কুঠার আর ছুরি নিয়ে যাত্রীদের কোপাতে শুরু করে। রক্তাক্ত অবস্থায় তাঁরা কামরার মেঝেয় লুটিয়ে পড়েন। হামলায় গুরুতর আহত হন হংকং থেকে আসা পর্যটক ৪ যাত্রী। রক্তে ভেসে যায় ট্রেনের কামরা। চালক তড়িঘড়ি করে ট্রেন থামালে তার থেকে নেমে পড়ে পালানোর চেষ্টা করেছিল হামলাকারী ওই আফগান কিশোর। পিছু ধাওয়া করে পুলিশ গুলি চালালে শেষমেশ মাটিতে লুটিয়ে পড়ে ওই কিশোর। তার ঘর তল্লাসী ‘ইসলামিক স্টেট’-এর পতাকা পাওয়া গিয়েছে। পালানোর সময় তাকে ‘আল্লাহো আকবর’ ধ্বনি দিতেও শোনা গিয়েছে। ওই কিশোরও ‘লোন উল্‌ফ’ কি না, জার্মান পুলিশ তা খতিয়ে দেখছে।
সোমবার রাতে ঘটনাটি ঘটেছে দক্ষিণ জার্মানির বাভারিয়া প্রদেশের উয়ার্জবার্গে, একটি লোকাল ট্রেনে। ট্রেনটি ট্রিউশ্লিনজেন থেকে যাচ্ছিল উয়ার্জবার্গে। বাভারিয়া প্রদেশের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী জোয়াকিম হেরমান জানিয়েছেন, ওই আফগান কিশোরটি থাকত বাভারিয়ার ওশেনফুর্টে আফগান শরণার্থী শিবিরে। ওই শিবিরে তার ঘর থেকে সন্ত্রাসবাদী সংগঠন ‘ইসলামিক স্টেট’-এর হাতে আঁকা পতাকা ও ফেস্টুন পাওয়া গিয়েছে। তবে তার ভিত্তিতে ওই আফগান কিশোরকে আইএসের জঙ্গি বা এই ঘটনায় আইএস জড়িত রয়েছে, সরকারি ভাবে এমন কথা বলার মতো তথ্য এখনও পাওয়া যায়নি। আহতদের হাসপাতালে ভর্তি করানো হয়েছে। তাঁদের অবস্থা আশঙ্কাজনক। পালানোর সময় ওই কিশোরকে ‘আল্লাহো আকবর’ ধ্বনি দিতে শোনা যায়।
বাভারিয়া প্রদেশের পুলিশ জানাচ্ছে, গত বছর আফগানিস্তান থেকে যে দেড় লক্ষ আফগান শরণার্থী এসেছিলেন জার্মানিতে, ওই কিশোর তাঁদেরই অন্যতম। কিশোরটির মা, বাবা, আত্মীয়স্বজন কেউই ছিলেন না। সে জার্মানিতে রাজনৈতিক আশ্রয় চেয়েছিল কয়েক মাস আগে। কিন্তু, তার আর্জি স্থানীয় প্রশাসন সম্প্রতি খারিজ করে দিয়েছিল। এই ঘটনা সেই ক্ষোভেরই পরিণতিতে কি না, তা খতিয়ে দেখা হচ্ছে বলে স্থানীয় প্রশাসন জানিয়েছে।