জনগণের পক্ষে কথা বলার কারণে সরকার হত্যা করেছে বিএনপি নেতাকর্মীকে-আবদুস সালাম

স্টাফ রিপোটার: নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের মূল্য বৃদ্ধি, গ্যাস, পানি ও জ্বালানী তেলের মূল্য বৃদ্ধি এবং লোডশেডিংয়ের প্রতিবাদ করায় আওয়ামী লীগ সরকার হত্যা করেছে ৫ জন বিএনপি নেতাকর্মীকে, অভিযোগ করেছেন বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সালাম।

তিনি বলেন, সরকার জোর জবরদস্তিমূলকভাবে ক্ষমতা দখল করে বসে আছে জগদ্দল পাথরের মতো, উন্নয়নের কথা বলে জনগণকে ধোকা দিয়ে যাচ্ছে। দিনে-রাতে এখন বিদ্যুৎবিহীন থাকে দেশ, অপ্রতুল গ্যাসের দাম বৃদ্ধি করে সৃষ্টি করেছে জনদূর্ভোগ, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্যের বাজারে আগুন। মধ্যবিত্ত এবং নি¤œ আয়ের মানুষের এখন বেঁচে থাকাটাই কঠিন হয়ে দাঁড়িয়েছে। জনাব সালাম বলেন, জনগণের পক্ষের দল হিসাবে বিএনপি যখন এ সবের প্রতিবাদ করতে রাস্তায় নামে তখনই তারা গুলি করে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে। তাদের নির্মমতায় এ পর্যন্ত ৫ জন নেতাকর্মী শহীদ হয়েছেন।

আজ ০৫ অক্টোবর বুধবার বিকেলে ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র এক মতবিনিময় সভায় বক্তব্য দানকালে বিএনপি চেয়ারপার্সনের উপদেষ্টা কাউন্সিলের সদস্য ও ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র আহবায়ক বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুস সালাম এসব কথা বলেন।

সভায় ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপি’র সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু সরকারের সকল জুলুম, নিপীড়ণ উপেক্ষা করে নেতাকর্মীদের রাজপথে থাকার আহবান জানিয়ে বলেন, সময় এসেছে, আর পেছনে ফেরার সময় নাই। দেশ, দেশমাতা, জনগণের মুক্তির আন্দোলনে নিজেকে বিলিয়ে দেয়ার।