জঙ্গি সুমাইয়া ১০ দিনের রিমান্ডে

90

রাজশাহী অফিসঃ রাজশাহীর গোদাগাড়ী উপজেলার বেনীপুরের জঙ্গি আস্তানা থেকে আত্মসমর্পণ করা জঙ্গি সুমাইয়া খাতুনকে ১০ দিনের রিমান্ডে নিয়েছে পুলিশ। রোববার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে সুমাইয়াকে আদালতে হাজির করে ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করা হয়েছিল। আদালত তার ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন।

জেলা জজ আদালতের পরিদর্শক খুরশিদা বানু কনা এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন। তিনি জানান, সুমাইয়াকে রাজশাহীর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আমলী আদালত-৩ এ হাজির করে পুলিশ। এ সময় মামলার তদন্ত কর্মকর্তা গোদাগাড়ী থানার পরিদর্শক আলতাফ হোসেন তার ১৫ দিনের রিমান্ডের আবেদন করেন।

তবে আদালতের বিচারক সাইফুল ইসলাম তার ১০ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এরপর মামলার তদন্ত কর্মকর্তা সুমাইয়াকে নিয়ে যান। রোববার থেকেই পুলিশ তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করতে পারবে বলেও জানান পরিদর্শক খুরশিদা বানু কনা।

গত বৃহস্পতিবার জঙ্গি আস্তানায় অভিযান শুরুর পর সুমাইয়ার বাবা, মা, ভাই, বোন ও বহিরাগত এক জঙ্গি আত্মঘাতি বোমার বিস্ফোরণে নিহত হয়। এরপর দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে সুমাইয়া আত্মসমর্পণ করেন। সুমাইয়ার ৮ বছরের ছেলে জুবায়েরকে তার চাচার জিম্মায় দেওয়া হয়েছে। তবে তিন মাসের মেয়ে আফিয়া সুমাইয়ার সঙ্গেই থাকবে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

গত বৃহস্পতিবারের ওই অভিযানের সময় জঙ্গি হামলায় ফায়ার সার্ভিসের এক কর্মী নিহত হন। আহত হন পুলিশের আরও চার সদস্য। পরদিন আস্তানায় চালানো হয় অপারেশন ‘সান ডেভিল’। এতে বাড়ির ভেতর থেকে উদ্ধার হয় অস্ত্র, বোমা, বোমা তৈরির উপকরণ ও জিহাদী বই।

এ ঘটনায় শনিবার ৮ জঙ্গির নাম উল্লেখ করে এবং অজ্ঞাত আরও ২০-২৫ জনকে আসামি করে থানায় মামলা করে পুলিশ। এরপরই এ মামলায় গ্রেপ্তার দেখিয়ে জঙ্গি সুমাইয়াকে কঠোর নিরাপত্তার মধ্য দিয়ে আদালতে তোলা হয়। এ সময় পুলিশের একজন নারী সদস্য সুমাইয়ার শিশু কন্যাকেও আদালতে নিয়ে আসেন।