Home জাতীয় ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি-সম্পাদকে অব্যাহতি; ভারপ্রাপ্ত দায়িত্বে জয়-রাগীব

ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি-সম্পাদকে অব্যাহতি; ভারপ্রাপ্ত দায়িত্বে জয়-রাগীব

238

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধি: নামসর্বস্ব সংগঠন বানানোর অপতৎপরতার কারণে সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল, সহ-সভাপতি সুমাইয়া সেতু, কে এম মুত্তাকী, সরোজ কান্তি ও কার্যকরী সদস্য এনি সেন, প্রান্ত রণি, গৌরচাঁদ ঠাকুর, পিনাক দেব, জি কে সাদিক ও খায়রুল হাসান জাহিনকে কেন্দ্রীয় দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়েছে ছাত্র ইউনিয়ন।আজ সংগঠনটির দপ্তর সম্পাদক রাকিবুল রনি এক বার্তায় গনমাধ্যমকে এতথ্য নিশ্চিত করেছেন।
তিনি বার্তায় জানান, গতকাল ১৮ জুন ডাকসু ক্যাফেটেরিয়ায় বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের জাতীয় পরিষদ সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। করোনার ভয়াবহতার কথা মাথায় রেখে স্বাস্থ্যবিধি মেনে সহ-সভাপতি নজির আমিন চৌধুরী জয়ের সভাপতিত্বে ও সহকারী সাধারণ সম্পাদক তামজিদ হায়দার চঞ্চলের সঞ্চালনায় শোকপ্রস্তাব উত্থাপনের মধ্য দিয়ে জাতীয় পরিষদ সভা শুরু হয়। পরবর্তীতে জাতীয় পরিষদ সদস্যগণ রাজনৈতিক ও সাংগঠনিক বিভিন্ন এজেন্ডায় আলোচনা করেন।এর আগে গত ১৭ জুন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের মুনীর চৌধুরী মিলনায়তনে বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের কেন্দ্রীয় সভা অনুষ্ঠিত হয়।

জাতীয় পরিষদ সভায় আভ্যন্তরীন বিভিন্ন সাংগঠনিক বিষয়ে আলোচনা পর্যালোচনা শেষে সারাদেশ থেকে আগত জাতীয় পরিষদ সদস্যদের সর্বসম্মতিক্রমে সংগঠনে নিষ্ক্রিয়তা, ৪০ তম সম্মেলনের পর সংগঠনের সর্বোচ্চ পরিষদ জাতীয় সম্মেলনের প্রতিনিধিদের অব্যশ পালনীয় নির্দেশ পালন না করা; ঢাকা মহানগর, বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয় সংসদ বিলুপ্ত ঘোষণা করা, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন সংসদের মূল নেতৃত্বকে বহিষ্কার করা এবং ব্যক্তিস্বার্থ চরিতার্থ করতে সংখ্যাগরিষ্ঠ সংসদের মতামতকে অগ্রাহ্য করে গুটি কয়েক পদলেহনকারী সদস্যকে নিয়ে ছাত্র ইউনিয়নকে নামসর্বস্ব সংগঠন বানানোর অপতৎপরতার কারণে সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ, সাধারণ সম্পাদক দীপক শীল, সহ-সভাপতি সুমাইয়া সেতু, কে এম মুত্তাকী, সরোজ কান্তি ও কার্যকরী সদস্য এনি সেন, প্রান্ত রণি, গৌরচাঁদ ঠাকুর, পিনাক দেব, জি কে সাদিক ও খায়রুল হাসান জাহিনকে লঘু দণ্ড হিসেবে কেন্দ্রীয় দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেয়া হয়। সংগঠনকে গতিশীল করবার লক্ষ্যে জাতীয় পরিষদ ৮ জন নতুন সদস্যকে কেন্দ্রীয় দায়িত্বে নিযুক্ত করে। সহ-সভাপতি হিসেবে অনিক রায়, জহর লাল রায়, সাদ্দাম হোসেন এবং কার্যকরী সদস্য হিসেবে আসাদ মণি, আশরাফি নিতু, মিঠুন চন্দ্র মহন্ত, তাহমিদ চৌধুরি, তাসবিবুল গণি নিলয়, রেশমি সাবা ও ফাহিম পবনকে কেন্দ্রীয় দায়িত্বে নিযুক্ত করেছে জাতীয় পরিষদ। জাতীয় পরিষদের সিদ্ধান্ত অনুযায়ী বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের ভারপ্রাপ্ত সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন নজির আমিন চৌধুরী জয় এবং ভারপ্রাপ্ত সাধারণ সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছেন রাগীব নাঈম।

ছাত্র ইউনিয়নের জাতীয় পরিষদ সভা থেকে সারা বাংলাদেশের কর্মীদের উদ্দেশ্যে শিক্ষাঙ্গন ও সমস্ত দেশে সর্বজনের স্বার্থবিরোধী বর্তমান গণতন্ত্রহীনতার পরিবেশ কাটিয়ে উঠবার লক্ষ্যে দুর্বার ছাত্র আন্দোলন গড়ে তুলবার আহ্বান জানানো হয়।