ঘৃণ্য যুদ্ধাপরাধী সাকা ও মুজাহিদের শাস্তির রায় কার্যকর হওয়ার ওয়ার্কার্স পার্টির সন্তোষ প্রকাশ

72

বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি কমরেড রাশেদ খান মেনন এমপি ও সাধারণ সম্পাদক কমরেড ফজলে হোসেন বাদশা এমপি মানবতাবিরোধী অপরাধের দায়ে মৃত্যুদ- প্রাপ্ত ঘৃণ্য অপরাধী সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী ও জামাত নেতা আলী আহসান মুজাহিদের শাস্তির রায় বাস্তবায়ন হওয়ায় সন্তোষ প্রকাশ করেছেন। আজ এক বিবৃতিতে তারা বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধে এই দুই শীর্ষ ব্যক্তির কৃতকর্মের উপযুক্ত শাস্তিই তাদের প্রাপ্য ছিল, যা তারা পেয়েছে। এই দুই কুখ্যাত রাজাকার ও আলবদর বাহিনীর হোতা মুক্তিযুদ্ধকালীন সময়ে, পাকিস্তানী সেনাবাহিনীর সহায়তায় এদেশে মেধাবী ও মুক্তবুদ্ধির চেতনার মানুষদের নির্মমভাবে হত্যা করে এদেশকে মেধাশূণ্য করার চক্রান্তে মত্ত হয়েছিল। ৪৪ বছর পর এই দুই কুখ্যাত ব্যাক্তির শাস্তি প্রদানের মধ্যে দিয়ে বাঙালি জাতী কিছুটা গ্লানীমুক্তির পথে এগোলো। বিবৃতিতে তারা আরো বলেন মামলা চলাকালীন সময়ে এই দুই অপরাধী বিশেষ করে সালাউদ্দিন কাদের চৌধুরী বিপুল অর্থ ব্যায়ে বিদেশে লবিস্ট নিয়োগ করে যুদ্ধাপরাধ আদালতকে প্রশ্নবিদ্ধ করার চেষ্টা করেছে। এমন কি তার আইনজীবি ও পরিবারের সদস্যরা রায়ের কপি চুরি করে বাইরে প্রকাশের অপচেষ্টা করেছে। আপিল নিষ্পত্তির সময়ে পাকিস্তানের পাঞ্জাব বিশ্ববিদ্যালয়ের ভুয়া সার্টিফিকেট উপস্থাপন করে বিচারকদের বিভ্রান্তি করার চেষ্টা করেছে। সর্বপরি রাষ্ট্রপতির কাছে প্রাণভিক্ষার আবেদনের নামে নাটক এবং তা নিয়ে জনমনে বিভ্রান্তি সৃষ্টির অপকৌশলও বাদ দেয়নি।