খালেদা জিয়া ও ফখরুলের রোগমুক্তি কামনায় এনপিপির দোয়া মাহফিল

স্টাফ রিপোটার: ২০ দলীয় জোটনেত্রী ও বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়া এবং মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরের আশু রোগমুক্তি ও সুস্থতা কামনায় দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

২ জুলাই, শনিবার বাদ জোহর রাজধানীর মতিঝিলে চেয়ারম্যানের অস্থায়ী কার্যালয়ে বিএনপি নেতৃত্বাধীন ২০ দলীয় জোটের শরিক ন্যাশনাল পিপলস পার্টির (এনপিপি) উদ্যোগে মিলাদ ও দোয়া মাহফিল অনুষ্ঠিত হয়েছে।

দোয়া মাহফিলপূর্ব সংক্ষিপ্ত বক্তব্যে এনপিপির চেয়ারম্যান ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদ বলেন, ২০ দলীয় জোটনেত্রী বেগম খালেদা জিয়া আজ গুরুতর অসুস্থ। চিকিৎসকরা অবিলম্বে তার বিদেশে উন্নত চিকিৎসার পরামর্শ দিয়েছেন। কিন্তু রাজনৈতিক প্রতিহিংসার কারণে সরকার তাকে উন্নত চিকিৎসার জন্য বিদেশে যাওয়ার অনুমতি দিচ্ছে না। আমরা অবিলম্বে বেগম খালেদা জিয়ার স্থায়ী মুক্তি ও বিদেশে সুচিকিৎসার দাবি জানাই।

তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ২০১৪ সালে বিনা ভোটে এবং ২০১৮ সালে রাতে ভোট করে জোরপূর্বক ক্ষমতায় রয়েছে। এবার তারা ইভিএমের মাধ্যমে কারচুপি করে ক্ষমতায় থাকতে চায়। ইভিএম হচ্ছে নিরবে ভোট চুরির মেশিন। তাই ইভিএম দেশের জনগণ মানে না। ভোট হতে হবে নির্দলীয়- নিরপেক্ষ সরকারের অধীনে ব্যালট পেপারে। তাই সরকারকে অবিলম্বে পদত্যাগ, সংসদ বিলুপ্ত এবং ইভিএম বাতিল করতে হবে।

ড. ফরিদুজ্জামান ফরহাদের সভাপতিত্বে এবং এনপিপির মহাসচিব মোস্তাফিজুর রহমান মোস্তফার সঞ্চালনায় দোয়া মাহফিলে উপস্থিত ছিলেন ২০ দলীয় জোট শরিক জাতীয় পার্টির (জাফর) ভারপ্রাপ্ত মহাসচিব সাবেক এমপি আহসান হাবিব লিংকন, জাগপার একাংশের সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা খন্দকার লুৎফর রহমান, ডেমোক্রেটিক লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুদ্দিন আহমেদ মনি, বাংলাদেশ মুসলিম লীগের (বিএমএল) মহাসচিব অ্যাডভোকেট শেখ জুলফিকার বুলবুল চৌধুরী, এনডিপির চেয়ারম্যান ক্বারী আবু তাহের, জাতীয় দলের চেয়ারম্যান সৈয়দ এহসানুল হুদা, ন্যাপ ভাসানীর চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট আজহারুল ইসলাম, গণ দলের চেয়ারম্যান এটিএম গোলাম মওলা চৌধুরী, এনপিপির, যুগ্ম-মহাসচিব মো. ফরিদ উদ্দিন প্রমুখ।

আলোচনা শেষে বেগম খালেদা জিয়া ও মির্জা ফখরুল ইসলামসহ অসুস্থ সকল নেতৃবৃন্দের আশু রোগমুক্তি ও সুস্থতা এবং দেশ ও জাতির কল্যাণ কামনায় বিশেষ মোনাজাত করা হয়। মোনাজাত পরিচালনা করেন মুফতি মাওলানা হাসিবুর রহমান।