খালেদা জিয়াকে আটক রেখে সংলাপ ফলপ্রসূ হবেনা–ফকরুল ইসলাম

যুগবার্তা ডেস্কঃ বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর বলেছেন, নির্বাচনের আগে খালেদা জিয়াকে মুক্তি দিতে হবে। তার মুক্তি না হলে কোনও নির্বাচনই অর্থবহ হবে না। খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে কোনও সংলাপ বা নির্বাচন ফলপ্রসূ হবে না।

আজ সকালে তিনি জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে জিয়া চ্যারিটেবল ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলায় খালেদা জিয়াকে সাজা দেওয়ার প্রতিবাদে সকাল ১১টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত এক ঘণ্টা মানববন্ধনকালে এসব কথা বলেন।

মানববন্ধনে আরও উপস্থিত ছিলেন বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ড. খন্দকার মোশাররফ হোসেন, ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, ড. আব্দুল মঈন খান, ভাইস-চেয়ারম্যান বেগম সেলিমা রহমান, বরকত উল্লাহ বুলু, মো. শাজাহান, আলতাফ হোসেন চৌধুরী, রুহুল আলম চৌধুরী, আব্দুল আউয়াল মিন্টু, ডা. এ জেড এম জাহিদ হোসেন, বিএনপি নেতা আব্দুস সালাম, আবুল খায়ের ভূইয়া, সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, শহীদ উদ্দিন চৌধুরী এ্যানী প্রমুখ।

মানববন্ধনের পাশে জলকামান, এপিসি ও প্রিজন ভ্যান নিয়ে বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও সাদা পোশাকের আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অবস্থানে ছিল। মানববন্ধনের শুরুতে নেতাকর্মীদের ব্যাপক উপস্থিতি লক্ষ্য করা গেলেও সাড়ে ১১টা থেকে নেতাকর্মীরা কর্মসূচিস্থল ত্যাগ করতে শুরু করেন। একপর্যায়ে কর্মসূচিস্থল প্রায় কর্মীশূন্য হয়ে পড়ে। এ কারণে নির্ধারিত সময়ের পাঁচ মিনিট আগে মানববন্ধন শেষ হয়।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, খালেদা জিয়াকে সুপরিকল্পিতভাবে রাজনীতি থেকে দূরে রাখতে মিথ্যা মামলায় সাজা দিয়ে আটক রাখা হয়েছে। এমনকি তিনি জামিন পেলেও তাকে জামিন দেওয়া হয়নি। একটার পর একটা মিথ্যা মামলা দিয়ে তাকে কারাগারে আটকে রাখা হয়েছে। একদিকে সরকার সংলাপের প্রস্তাব পাঠিয়েছে, অন্যদিকে খালেদা জিয়ার সাজা বাড়ানো হয়েছে। এই দুইটা সাংঘর্ষিক।