খালেদা জিযা দশ মামলায় জামিন পেলেন

যুগবার্তা ডেস্কঃ ১০টি মামলায় জামিন পেলেন খালেদা জিয়া। বুধবার ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতে আত্মসমর্পণ করে এ জামিন নেন। খালেদা জিয়ার আইনজীবী মেজবাহ উদ্দিন বলেন, রাষ্ট্রদ্রোহের মামলার অপরাধ আমলে নিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে আদালত তাঁকে জামিনও দিয়েছেন। এ ছাড়া নাশকতার অভিযোগের দারুস সালাম থানায় করা আরও আটটি মামলার অভিযোগপত্র আমলে নিয়েছেন আদালত। সে মামলাগুলোতেও তাঁকে জামিন দিয়েছেন।
খালেদা জিয়ার এই আইনজীবী আরও জানান, খালেদা জিয়া এরপর বড় পুকুরিয়া কয়লাখনি দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দেবেন। পরে পুরান ঢাকার রেবুতি ম্যানসনে অবস্থিত ঢাকার ৯ নম্বর বিশেষ জজ আদালতে নাইকো দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দেবেন। দারুস সালাম থানার করা আরও একটি নাশকতার মামলায় ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিম আদালতে হাজির হবেন তিনি।
এর আগে ১১টা ৪০ মিনিটে আদালতে পৌঁছান বিএনপির চেয়ারপারসন। এর আগে হাজিরা দিতে সকাল ১০টা ১০ মিনিটে গুলশানের বাসা ‘ফিরোজা’ থেকে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের উদ্দেশ্যে রওনা হয় খালেদা জিয়ার গাড়ি।
এদিকে সকাল থেকেই আদালতপাড়ায় নেওয়া হয়েছে কড়া নিরাপত্তার ব্যবস্থা । বিপুল সংখ্যক পুলিশ ও র্যা ব সদস্য আদালত প্রাঙ্গণ এবং আপশাপাশের এলাকায় অবস্থান নিয়েছেন। আদালতের প্রবেশপথগুলোতে তল্লাশি করে তারপর আইনজীবী ও বিচারপ্রার্থীদের ঢুকতে দেওয়া হচ্ছে। আইনজীবীদের পরিচয়পত্রও দেখাতে হচ্ছে।
দারুস সালাম থানার মামলাগুলোর মধ্যে ৪(৩)১৫ এবং ৮(২) ১৫ নম্বর মামলায় গত ১১ মে খালেদা জিয়াসহ বিএনপির ৫১ নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। এরপর গত ২৬ মে ৬(২)১৫ নম্বর মামলায় খালেদা জিয়াসহ ২৬ জনের বিরুদ্ধে অভিযোগপত্র দেওয়া হয়।
গত ২৯ মে খালেদা জিয়াসহ ৫১ আসামির বিরুদ্ধে এ থানার আরও দুটি মামলায় অভিযোগপত্র দাখিল করে পুলিশ।
সর্বশেষ গত ৬ জুন ২৯(২)১৫, ৫(২)১৫, ৩১(২)১৫ ও ৬২(১)১৫ নম্বর মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১০৫ জনের বিরুদ্ধে আদালতে অভিযোগপত্র দেয় পুলিশ। সবগুলো মামলায় খালেদা জিয়াকে পলাতক দেখিয়ে তার বিরুদ্ধে গ্রেপ্তারি পরোয়ানা জারির আবেদন করা হয়।
এরপর একই ভবনের ষষ্ঠ তলায় বিশেষ জজ আদালতে বড় পুকুরিয়া কয়লা খনি দুর্নীতি মামলায় হাজিরা দেন সাবেক প্রধানমন্ত্রী খালেদা।